ঢাকা(২৬ সেপ্টেম্বর): প্রতিবছরের ন্যায় এবারও বিশ্বের অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশেও বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে আগামীকাল বিশ্ব পর্যটন দিবস-২০১৭ পালন করা হবে। এ বছরের মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে টেকসই পর্যটন- উন্নয়নের মাধ্যম” যা অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নে পর্যটন শিল্পের গুরুত্বপূর্ণ অবদানেরই বহিঃপ্রকাশ বলে আমি মনে করি। বিশ্ব পর্যটন সংস্থা কর্তৃক ২০১৭ সালকে হিসেবে পালন করা হচ্ছে, যা অত্যন্ত প্রাসঙ্গিক।
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ উপলক্ষে পৃথক বাণী দিয়েছেন। বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে এ উপলক্ষে বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ ও নিবন্ধ প্রকাশ করা হবে। বিভিন্ন চ্যানেলে এ উপলক্ষে টকশো ও প্রামান্য চিত্র ও রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে পর্যটন বিষয়ক ডকুমেন্টারি প্রদর্শিত হবে। ঢাকার সড়ক দ্বীপ সমূহ ও ফাইভ স্টার হোটেলগুলোকে এ উপলক্ষে বর্ণাঢ্যভাবে সাজানো হয়েছে।
দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড, বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন এ উপলক্ষে ১২ দিন ব্যাপি কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এর মধ্যে রয়েছে আগামীকাল সকাল সাড়ে আটটায় মৎস্য ভবন থেকে টিএসসি পর্যন্ত র‌্যালি, সকাল সাড়ে নয়টায় টিএসসি অডিটোরিয়ামে আলোচনাসভা, বিকেল ৩টায় এটিজেএফবি আয়োজিত রবীন্দ্র সরোবরে মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে এশিয়ান ট্যুরিজম ফেয়ার।
বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এসব কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের জন্য সবাইকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।