এস এম জহিরুল ইসলাম গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি:

 

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলায় এক গরু বিক্রেতাকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন হত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। নিহত মোশারফ হোসেন (৪৫) একই এলাকার আয়েজ উদ্দিনের ছেলে।
স্ত্রীর সঙ্গে কলহের জেরে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে এমন দাবি পরিবারের ও স্বজনদের। তবে পুলিশের ধারণা হার্টস্ট্রোক করে মৃত্যু হয়েছে।

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলম চাঁদ জানান, রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার বড়গাঁও এলাকার শ্বশুরবাড়ি থেকে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে। তবে পুলিশ মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হতে পারেনি।

নিহত মোশারফের ছোট ভাই স্কুল শিক্ষক মোফাজ্জল হোসেন বলেন, ‘মোশারফের স্ত্রী পারভিন আক্তার (৩২) গরু কেনাবেচার ১০ হাজার টাকা স্বামীকে না জানিয়ে খরচ করে ফেলেন। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মনোমালিন্য হলে দু’দিন আগে পারভিন ছেলেকে নিয়ে বাবার বাড়ি চলে যান। এরপর ছেলে অসুস্থ হওয়ার খবর পেয়ে মোশারফ রোববার সন্ধ্যায় শ্বশুরবাড়ি যান। এ সময় স্ত্রী সহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে পিটিয়ে হত্যা করে বলে শুনেছি।’

তবে ওসি আলম চাঁদ বলেন, ‘মোশারফের গায়ে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে লাঞ্ছিত করলে পালাতে গিয়ে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যেতে পারেন। পুলিশ ঘটনা তদন্ত করছে।’