পালিত হচ্ছে সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা মাস অক্টোবর ২০১৭। বিশ্বব্যাপী এ কার্যক্রমের পঞ্চম সপ্তাহের (৩০-৩১ অক্টোবর) স্লোগান হলো- ‘সাইবার হুমকি থেকে গণসেবামূলক অবকাঠামো রক্ষা’। এ সপ্তাহের কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে পরিবহন ব্যবস্থা, পানি সরবরাহ, ফোন সংযোগসহ গণসেবামূলক অন্যান্য অবকাঠামোগুলোর সাইবার সুরক্ষা নিয়ে সচেতনতা তৈরি করা। কারণ এসব সেবা নিরবচ্ছিন্নভাবে চালু থাকা একটি দেশের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি সচেতনতামূলক কর্মসূচি নেয়ার আহ্বান জানিয়ে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশন বলেছে, গণসেবামূলক প্রতিষ্ঠানগুলোর স্থি’তিশীলতা আমাদের জাতীয় নিরাপত্তা জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের দেশের স্লোগানই হলো ডিজিটাল বাংলাদেশ। এর ফলে ক্রমেই আমরা সব ক্ষেত্রে ইন্টারনেটসহ বিভিন্ন প্রযুক্তির সুবিধায় যুক্ত হচ্ছি। তাই বৈশ্বিক এই কর্মসূচির অংশ হিসেবে আমাদেরও সাইবার নিরাপত্তার বিষয়গুলো নিয়ে এখনই সচেতন হওয়া দরকার। সুরক্ষার বিষয়গুলো নিয়ে তৃণমূল পর্যায় থেকে সচেতনতা কার্যক্রম চালাতে হবে।

সাইবার সুরক্ষায় বিশ্বে প্রতি বছর অক্টোবরকে সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা মাস হিসেবে পালন করা হয়। ২০১৬ সাল থেকে বাংলাদেশে এটি পালন শুরু করে সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশন। এ বছর (২০১৭) যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা কার্যক্রমের অফিসিয়াল চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশের এই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। এ কার্যক্রমের অফিসিয়াল চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশন সাইবার নিরাপত্তা এবং ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তা বিষয়ে সচেতনতা তৈরিতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছে। এরই অংশ হিসেব সংগঠনটি মাসব্যাপী নানা কার্যক্রম চালাচ্ছে।