মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, সাংবাদিকদের আর্থিক নিরাপত্তায় নবম ওয়েজবোর্ড গঠনের দাবি খুবই যৌক্তিক এবং শিগগিরই তা গঠন করার জন্য উদ্যোগ নেয়া হবে।
আজ দুপুরে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল মিলনায়তনে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সাংবাদিকদের আর্থিক সহায়তা প্রদান উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ সাংবাদিক অধিকার ফোরাম (বিজেআরএফ) উদ্যোগে সিডনী প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিলের সহায়তায় ও বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের সহযোগিতায় দেশের বিভিন্ন জেলার সাম্প্রতিক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ১৮জন সাংবাদিককে এই আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়।

মোজাম্মেল হক বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ঐতিহ্যকে লালন করে একটি উন্নত বাংলাদেশ গঠনে গণমাধ্যমকর্মী ও সাংবাদিকরা বিরাট ভূমিকা রাখতে পারে। তিরপতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাংবাদিকদের কল্যাণে আইন করে ছিলেন। বতর্মান প্রধানমন্ত্রীও সাংবাদিকদের জন্য কল্যাণ ট্রাস্টসহ অনেক কিছু করেছেন। গণমাধ্যম কর্মীদের আর্থিক নিরপাত্তা নিশ্চিত করতে ওয়েজবোর্ড গঠন করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে ।
মন্ত্রী বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সাংবাদিকদের আর্থিক সহায়তা দেয়ার জন্য সিডনী প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিলকে ধন্যবাদ জানান এবং ক্ষতিগ্রস্ত সাংবাদিকদের জন্য সরকারও সহায়তা দিতে পারে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উন্নত বাংলাদেশ গঠনে সাংবাদিক ও গণমাধ্যম কর্মীদের ভূমিকা শীর্ষক এ মুক্ত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি মমতাজ উদ্দিন আহমদ।
আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাংবাদিক আতাউর রহমান। আলোচনা সভায় অংশ নেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক বর্তমানের উপদেষ্টা সম্পাদক স্বপন কুমার সাহা, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি কাজী রফিক, প্রেস কাউন্সিলের সচিব শ্যামল চন্দ্র কর্মকার, সিডনী প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মেদ আবদুল মতিন, সিনিয়র সাংবাদিক আশরাফ খান, নিরাপদ নিউজের উপদেষ্টা সম্পাদক লায়ন গণি মিয়া বাবুল, সাংবাদিক গ্যালমান সফি, হেমায়েত হোসেন প্রমুখ।

দিনাজপুর, গাইবান্ধা, নেত্রকোনা, নীলফামারি,পুটয়াখালী, বরগুনাসহ বিভিন্ন জেলার ১৮ জন সাংবাদিক সিডনী প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিল আর্থিক সহায়তা প্রদান করে।