ঢাকা, ২৪ আশ্বিন (৯ অক্টোবর):
পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মোঃ মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ বলেছেন, সমাজের ভাগ্যবিড়ম্বিত ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীকে উন্নয়নের মূল ¯্রােতধারায় সম্পৃক্ত করতে সরকার সামাজিক সুরক্ষার আওতা বৃদ্ধি করেছে। চলতি বাজেটে সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষের সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ২৭ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এতে প্রায় ৫০ হাজার মানুষ উপকৃত হবে।
প্রতিমন্ত্রী রাঙ্গাঁ আজ ঢাকায় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘শারি’ আয়োজিত ‘হরিজন সম্প্রদায়ের বেতন বৈষম্য: উত্তরণের উপায়’ শীর্ষক আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। শারি’র নির্বাহী পরিচালক প্রিয় বালা বিশ্বাসের সভাপতিত্বে এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট আইনজীবী রানা দাস গুপ্ত, নুরুন নাহার ওসমানী, সাংবাদিক সুভাষ সিংহ রায়, মোঃ জাকির হোসেন, হরিজন নেতা নির্মল চন্দ্র ও রামানন্দ দাস।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের প্রায় ৭০ লাখ দলিত জনগোষ্ঠীর সুষ্ঠু আবাসন, শিক্ষা, কর্মসংস্থান ও স্বাস্থ্যসহ মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে না পারলে দেশের উন্নয়ন ও গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপদান সম্ভব নয়। সরকার অনগ্রসর হরিজন জনগোষ্ঠীর দারিদ্র্যবিমোচন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। তিনি এ ব্যাপারে বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলোকে সরকারের চলমান দলিতবান্ধব কর্মসূচিতে সহায়ক ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান। তিনি শারি কর্তৃক হরিজন জনগোষ্ঠীর বেতন বৈষম্য নিয়ে সম্পাদিত গবেষণা কর্মকা-ের প্রশংসা করে বলেন, এতে এ অবহেলিত জনগোষ্ঠীর সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিকে এগিয়ে নেয়ার পাশাপাশি ন্যায্য বেতন-ভাতা প্রাপ্তির অধিকার নিশ্চিত হবে। তিনি আয়োজক সংগঠনকে আরো মানব কল্যাণধর্মী কার্যক্রম সম্প্রসারণের পরামর্শ দিয়ে সহায়তার আশ্বাস দেন।