কুষ্টিয়া, ৩০ জানুয়ারী’ ২০১৮ :
সরকারী কোষাগার থেকে বেতন-ভাতা ও পেনশন পাওয়ার দাবীতে কুষ্টিয়ার কুমারখালী পৌরসভা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি কর্মসূচী চলছে। বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশনের আহবানে দেশব্যাপী কর্মসুচির অংশ হিসেবে কুষ্টিয়ায় ৩য় দিনের মত এই কর্মসূচী চলছে। এ উপলক্ষ্যে আজ মঙ্গলবার সকাল ৯টায় ৩য় দিনের মতো কুষ্টিয়ার কুমারখালী পৌরসভা চত্তরে বসে কর্মকর্তা কর্মচারীরা এই কর্মবিরতি পালন করে।
এতে নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে পৌরসভা বাসী। এছাড়াও কুষ্টিয়ার সব পৌরসভাতে এই কর্মসূচী পালিত হচ্ছে।
কর্মবিরতি চলাকালে কুষ্টিয়ার কুমারখালী পৌরসভা এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল হালিমের সভাপতিত্বে বক্তব্যে পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বলেন, জনসাধারনের মৌলিক চাহিদা পূরনে জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত প্রয়োজনীয় সকল নাগরিক সেবা, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন, নগরায়নে পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা দিনরাত পরিশ্রম করেন। সেখানে বাংলাদেশের অধিকাংশ পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা মাসের পর মাস বেতন-ভাতাদী না পেয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে অনাহারে অর্ধাহারে জীবন যাপন করছে। তাই পৌরসভার সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন ভাতাদি, পেনশন ও গ্রাচুইটি সরকারী কোষাগার থেকে দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান তারা। না হলে আগামীতে আরো কঠোর কর্মসূচি করার ঘোষনা দেওয়া হয়। পরে কুমারখালী পৌরসভা চত্তর থেকে শহরে মিছিল বের করে পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।