১৯ ও ২০ গ্রেড বন্ধ করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন মোঃ ইমরান, ঢাকা প্রতিনিধি। আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে নিয়োগ বন্ধের প্রতিবাদে আজ ৩০অক্টোবর ২০১৭ ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে বাংলাদেশ চতুর্থ শ্রেণী সরকারী কর্মচারী সমিতির উদ্যোগে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ১৯ ও ২০তম গ্রেড বন্ধ করে আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে যার কারণে গরীব দুঃখী মানুষের ছেলে-মেয়েরা যারা উচ্চ শিক্ষা থেকে বঞ্চিত তারা সরকারী চাকুরি থেকে বঞ্চিত হবে। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে গরীব মেহনতি মানুষের সংখ্যাই বেশি। যাদের ছেলেমেয়ে ৮ম শ্রেণী ও এস এস সি পাশ তাদের ছেলে মেয়েরা কি সরকারী চাকুরি পাবে না? সরকারের এমন সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে বাংলাদেশের সাধারণ গরীব মানুষের স্বল্প শিক্ষিত সন্তানেরা কোথায় যাবে যা তারা কোনভাবেই মেনে নিতে পারছে না। সরকারের এমন সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে বাংলাদেশের সাধারণ গরীব মানুষের স্বল্প শিক্ষিত সন্তানেরা কোথায় যাবে যা তারা কোনভাবেই মেনে নিতে পারছে না। তাই বাংলাদেশ চতুর্থ শ্রেণী সরকারী কর্মচারী সমিতির পক্ষ থেকে আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে নিয়োগ বন্ধ করাসহ ৪ দফা দাবি আদায়ের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। দাবিসমূহ হলোঃ ১|আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে নিয়োগ বন্ধ করতে হবে। ২| ১৬-২০তম গ্রেডের সকল কর্মচারীদের শিক্ষাগত যোগ্যতারভিত্তিতে পদোন্নতি প্রদান করতে হবে। ৩|সকল সরকারী কর্মচারীদের জন্য সরকারী নিয়োগের ক্ষেত্রে ৫০ ভাগ পোষ্য কোটা নির্ধারণ করতে হবে। ৪|সকল সরকারী কর্মচারীদের পেনশন ভাতা পূর্বের ন্যায় বলবৎ রাখতে হবে। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা তাদের আন্দোলন চালিয়ে যাবে, এবং এই দাবি আদায়ের জন্য তারা যে কোন ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত আছে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ চতুর্থ শ্রেণী সরকারী কর্মচারী সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ আলী, বাংলাদেশ চতুর্থ শ্রেণী সরকারী কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবু সায়েম, সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা আব্দুল খালেক এবং হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের কর্মচারী সমিতির সভাপতি শহীদ আহমেদ।