ঢাকা, ২৩ আশ্বিন (৮ অক্টোবর) :

বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিকদের জন্য জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয় এক হাজার প্যাকেট ত্রাণসামগ্রী দান করেছে। বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন ও শিক্ষার্থীদের চাঁদার মাধ্যমে ত্রাণসামগ্রী প্রস্তুত করা হয়।
জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিশ্ববিদ্যালয় মিলনায়তনে আজ এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার হাতে এ ত্রাণসামগ্রী তুলে দেন। বিশ^বিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ মোঃ সেলিম ভূইয়ার সভাপতিত্বে এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ মীজানুর রহমান, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ সচিব মোঃ শাহ্ কামাল প্রমুখ বক্তৃতা করেন।
এ সময় মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর মহানুভবতায় সম্পূর্ণ মানবিক কারণে বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছে। মিয়ানমারে এসব নাগরিক যে ধরনের নির্যাতনের শিকার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় গ্রহণ করেছে তা সভ্য সমাজে সম্পূর্ণ অমানবিক ও অকল্পণীয়। মানুষ হিসেবে এদের আশ্রয় দেয়া আমাদের নৈতিক দায়িত্ব ছিল। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত দেশি বিদেশি সাহায্য দিয়েই আশ্রয় গ্রহণকারী পাঁচ লক্ষাধিক রোহিঙ্গার সার্বিক ত্রাণ কার্য পরিচালিত হচ্ছে। এদের প্রায় সকলের জন্য থাকার শেড নির্মাণ সম্ভব হয়েছে। ক্যাম্প এলাকায় রাস্তা নির্মাণ ও বিদ্যুৎ সরবরাহের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সরকার এখন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এদের চিকিৎসা ও স্যানিটেশনের ওপর গুরুত্বারোপ করছে।
মন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ যে মানবিকতার পরিচয় দিয়েছে তা আজ দেশ বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে। দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ের মতো মানবিকতা দেখিয়ে রোহিঙ্গাদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে তিনি আহ্বান জানান।