আজ ৮ ডিসেম্বর- ২০১৭ শুক্রবার সকাল ১০ ঘটিকায় বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফাউন্ডেশন- এর উদ্যোগে ৬ ডিসেম্বর- ১৯৯০ এর ‘গণতন্ত্র দিবস’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- সাবেক রাষ্ট্রপতি ডাঃ এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। বক্তব্য রাখেন- বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল, এ্যাড. ডঃ মোঃ শাহজাহান- চেয়ারম্যান বাংলাদেশ মানবাধিকার ফেডারেশন, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, আরো বক্তব্য রাখেন- এস আল মামুন, হাসান মনজুর, খন্দকার আলমগীর, ডিইউজের সদস্য অলিদ সিদ্দিকী তালুকদার, রফিকুল ইসলাম রিপন, মোজাহারুল ইসলাম, এসএম তাজুল ইসলাম, দেলোয়ার হোসেন, মিজান মাসুম, মতিউর রহমান সরদার প্রমুখ।

সভায় সভাপতিত্ব করেন- বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফাউন্ডেশনের সভাপতি কামাল উদ্দিন আহম্মেদ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন- বিএফইউজের প্রচার সম্পাদক ও বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন। এ্যাড. দিদারুল আলমের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক রাষ্ট্রপতি, বিকল্প ধারার প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ডাঃ এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন- সকল রাজনৈতিক দলের জন্য সোহরাওয়ার্দী উদ্যানকে সভা-সমাবেশ করার জন্য উন্মুক্ত করে দিন। সুন্দর ভাষায় কথা বলুন, নাকে ক্ষত দেওয়ার মত ভাষা পরিহার করুন। ২০১৪ এর নির্বাচন নিয়ে গর্ব করার কিছু নেই। আমরা কোন দলের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নেওয়ার কথা বলি না। গুম, খুন, ধর্ষণের রাজনীতি বন্ধ করুন। তিনি বলেন- এসিড নিক্ষেপ মামলায় শাস্তি মৃত্যুদন্ড হওয়ায় এসিড নিক্ষেপ প্রবনতা কমে গেছে। নারী ও শিশু ধর্ষণ মামলার সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড করা হোক। তাহলে শিশু ও নারী ধর্ষণ কমে যাবে। তিনি আরো বলেন- আমরা সন্ত্রাসকে ঘৃনা করি। ২০১৪ সালে বিনা ভোটে নির্বাচন করেছেন ১৫৩টি আসনে বিনা ভোটে এমপি নির্বাচিত হয়েছেন, অনেকেই মন্ত্রী হয়েছেন, সংবিধান সংশোধন করেছেন এটা কোন গণতান্ত্রিক সরকারের কাজ নয়। জোর করে ক্ষমতায় থাকাও গণতান্ত্রিক সরকারের কাজ নয়।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন- ২০১৪ সালের মত নির্বাচন পৃথিবীর কোন দেশে হয়েছে কিনা আমার জানা নেই। যারা রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ ক্ষমতায় থেকে মিথ্যা কথা বলে আজ সমস্ত জাতিকে মিথ্যুক সংস্কৃতি চালু করেছে সরকার। রোবট সোফিয়াকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন- ১২ কোটি টাকা সরকারের তহবিল থেকে খরচ করে জাতিকে কি উপহার দিলেন। সরকার ডিজিটাল ডিজিটাল বলেন আমাদের দেশে ডিজিটালের কোন উন্নতি হচ্ছে না। পাকিস্তান থেকে আমরা অনেক ডিজিটাইলেশনে পিছিয়ে আছি। ডিজিটাইলেশন করতে হলে সর্বপ্রথমে দেশের সকল ভূমিকে ডিজিটাইলেশনের আওতায় আনতে হবে। তাহলে মামলা অনেক কমে আসবে।