আশিকুর রহমান সবুজ,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার তালতলি গ্রামে পাওনা টাকা চাইতে গেলে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে প্রতিপক্ষের অতর্কিত হামলায় গুরুতর আহত হয়ে বাবা ছেলে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মৃত্যুর মুখমুখি। ১০ ফেব্রুয়ারি বিকাল আনুমানিক সাড়ে ৫টায় উপজেলার তালতলি গ্রামের মুরগীর বাজার এ ঘটনা ঘটে।
ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, ওই দিন বিকালে তালতলি গ্রামের মৃত রমজান আলীর  পুত্র কামাল (৩৫) তার ভাই কামরুল (৩২) এর নিকট  পাওনা ১২ হাজার ২শ টাকা চাইতে যান। ওই সময় পাওনা টাকা চাওয়াতে আলহাজ্ব আব্দুছ সামাদ মিয়ার পুত্র হাবিবুর রহমান হবি (৪৮) এর উপর চড়াও হয় এবং এক পর্যায়ে অতর্কিত মারধর শুরু করে। ওই সময় তার  ডাক চিৎকারে বাড়িতে থাকা হাবিবুর রহমান হবির ছেলে ইশতিয়াক ফরাজি রাব্বি (১৭) ছুটে এলে তাকেও প্রতিপক্ষরা বেদম মারধর করে।
প্রতিপক্ষের লোকজন ওই সময় দেশিয় অস্ত্র ধারা হাবিবুর রহমান হবি মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে এবং ইশতিয়াক ফরাজি রাব্বি মুখে হতে মাথায় প্রচন্ড আঘাত করে। এতে দু’জনই গুরুতর আহত হয়। গুরুতর আহতাবস্থায় পরিবারের লোকজন তাদের শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। বর্তমানে তারা মুমুর্ষ অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।
আহত ইশতিয়াক জানান, আমরা হাসপাতালে চিকিৎসারত অবস্থায় স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের বিষয়টি অবহিত করেছি। স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ নাসির আহমেদ আমাদের চিকিৎসা নেয়ার কথা বলে এবং থানায় কোন মামলা না করার কথা বলে অদ্যাবধি কোন খোঁজখবর নেয়নি। জানা যায়, এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।