ঝিনাইদহ সংবাদদাতাঃ
ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার আবাইপুর বাজার মিনগ্রামে আধিপত্য বিস্তার কে কেন্দ্র করে দু-গ্রুপের সংঘর্ষে দুই ২ জন কে কুপিয়ে আহত করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত বারিবার বিকাল ৪ টার দিকে। এ ঘটনায় ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। স্থানীয়রা জানায়, শৈলকুপার আবাইপুর ইউনিয়নে দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় আধিপত্ত বিস্তার নিয়ে ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও আ.লীগ নেতা হেলাল উদ্দিন বিশ্বাস এবং সাবেক চেয়ারম্যান ও আ.লীগ নেতা মোক্তার আহমেদ মৃধার মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। গতকাল বিকালে মীনগ্রাম বাজারের নিকট হেলাল বিশ্বাসের সমর্থকরা মুক্তার মৃধার সমর্থক মীন গ্রামের মৃত ইয়াকুব শেখের ছেলে নায়েব আলী (৫২) কে লাঠি দিয়ে পিটায়ে আহত করে। এই ঘটনার পর মুক্তার মৃধার সমর্থক আবাইপুর বাজারে হেলাল বিশ্বাসের সমর্থক বক্কার শেখ (৫৫) কে এলাপাতাড়ি কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে। পরে স্থানীয়রা ২ জনকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

ঝিনাইদহ হাসপাতালে ভর্তি আহত নায়েব আলী জানায়, আমি বাড়ি থেকে মীন গ্রাম বাজারে যাচ্ছিলাম এ সময়ে বাবলুর দোকানের ওখান থেকে মীন গ্রামের কাইযুম,এনামুল বাবলুর নেতৃত্বে ৭/৮ জনের একটি দল হঠাৎ করে আমাকে লাঠিসোটা নিয়ে মার শুরু করে। কেন কি কারনে আমাকে মেরেছে তা আমি বলতে পারি না। অন্যদিকে আহত বক্কার শেখ জানায় আমি ৪ টার দিকে আবাইপুর বাজার থেকে বাজার করে বাড়ি যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হই। এই সময়ে মীনগ্রামের সাবেক ইউ পি সদস্য রঞ্জুর নেতৃত্বে তরিকুল, নিমাই, চাঁদ আলী, লিকু সহ ১০/১২ জন একটি দল আবাইপুর বাজারের গারিস এবং বিদুতের চায়ের দোকানের মাঝ থেকে বের হয়ে প্রথমে রঞ্জু আমাকে সাইকেল থেকে ফেলে দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপায়ে আমাকে আহত করে। এই ঘটনায় উভয় পক্ষ দাবী করে যে আগে আমাদেরকে হামলায় চালিয়ে আহত করার পর আমারা তাদের উপর হামলা চালায়। কিন্তু কোন পক্ষ আগে হামলা চালিয়েছে তা নিশ্চিত করে জানা যায়নি। শৈলকুপা থানার ওসি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ঝিনাইদহ সাংবাদিকদের জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ২ জনকে আটক করা হয়েছে।