শাকিল মুরাদ, শেরপুর প্রতিনিধি:

শেরপুরে শিশু ধর্ষণ মামলায় নেইলা মিয়া (২১) নামে এক যুবকের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড, অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদন্ড প্রদান করেছে আদালত। ১৯ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার দুপুরে শিশু আদালতের বিচারক (অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ) মোহাম্মদ মোছলেহ উদ্দিন আসামীর অনুপস্থিতিতে ওই রায় ঘোষণা করেন। দন্ডিত যুবক নালিতাবাড়ী উপজেলার বাইটকামারী দিকপাড়া গ্রামের মৃত বাবুল মিয়ার ছেলে।

জানা যায়, ২০১৪ সালের ১১জুন বিকেলে নালিতাবাড়ী উপজেলার বাইটকামারী দিকপাড়া গ্রামের যুবক নেইলা মিয়া স্থানীয় দরিদ্র মৎস্যজীবী পরিবারের ১১বছরের শিশু ও তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ডওয়া ফল দেওয়ার প্রলোভনে নিজের বসতঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। ওই শিশুর চিৎকারে তার পরিবারের লোকজনসহ আশেপাশের লোকজন ছুটে গেলে নেইলা পালিয়ে যায়। পরে গুরুতর অবস্থায় ধর্ষিতা শিশুকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই ঘটনায় পরদিন শিশুর মা বাদী হয়ে নেইলার বিরুদ্ধে নালিতাবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এক পর্যায়ে ১৬ জুলাই মামলার একমাত্র আসামী নেইলা মিয়া তৎকালীন ট্রাইব্যুনালে স্বেচ্ছায় হাজির হয়ে বয়স কম দেখিয়ে জামিনে যায়। তদন্ত শেষে নালিতাবাড়ী থানার এসআই আরিফ হোসাইন একই বছরের ২৭ জুলাই নেইলার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এরপর থেকেই পলাতক হয় নেইলা। পরবর্তীতে মামলাটি শিশু আদালতে বদলী হয়। বিচারিক পর্যায়ে বাদী, ভিকটিম. চিকিৎসকসহ ৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ ও উভয় পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে আসামীকে ওই সাজা দেওয়া হয়।

শেরপুরের শিশু আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট গোলাম কিবরিয়া বুলু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।