শাকিল মুরাদ, শেরপুর:

শেরপুরের শ্রীবরদী ইসলামিয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম, দূর্নীতি ও স্বোচ্ছারিতার অভিযোগ ওঠেছে। এনিয়ে মাদরাসার শিক্ষার্থীরা ক্ষুদ্ধ হয়ে  সোমবার সকালে পৌর শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। মিছিল শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট স্বারক লিপি প্রদান করেছে।

জানা যায়, ৩ডিসেম্বর থেকে ওই মাদরাসায় বার্ষিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বার্ষিক পরীক্ষা চলাকালিন সময়ে মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল হালিম সঠিক সময়ে উপস্থিত ও মাদরাসার দরজা, জানালা ও টয়লেট খোলা না থাকায় এবং ময়লা আবর্জনা ভর্তি থাকায় শিক্ষার্থীরা হতভম্ব হয়ে পরে। এসময় মাদরাসার সকল শিক্ষার্থীরা একটি বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে তারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদা নাছরিনের নিকট একটি স্বারক লিপি প্রদান করে।

স্বারক লিপি সূত্রে জানা যায়, অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল হালিম বিভিন্ন অনিয়ম, দূর্নীতি ও অর্থ আতœস্বাতের অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া, তিনি অন্যান্য শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সাথেও অসদাচরন করেন। এনিয়ে অধ্যক্ষ আব্দুল হালিমের সাথে কথা হলে তিনি জানান, গতকাল সুইপার না আসায় টয়লেট পরিস্কার করা সম্ভব হয় নাই। তবে শিক্ষার্থীরা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট একটি স্বারক লিপি প্রদান করেছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদা নাছরিন বলেন, শিক্ষার্থীরা আমার দপ্তরে একটি স্বারক লিপি দিয়েছে।