ঢাকা: বুধবার, ১৮ এপ্রিল, ২০১৮
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘শুধু সমালোচনা নয়, উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরাও গণমাধ্যমের পবিত্র দায়িত্ব। উন্নয়ন সংবাদের পাশাপাশি উন্নয়ন কর্মকান্ডের ভুল-ত্রুটি তুলে ধরা ইতিবাচক। কিন্তু সমালোচনার ভিড়ে গণমুখী উন্নয়নের বিশাল কর্মযজ্ঞ যেন আড়াল হয়ে না যায়, সেদিকেও সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।’
বুধবার সকালে রাজধানীতে বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউটের সেমিনার হলে প্রধান তথ্য অফিসার কামরুন নাহারের সভাপতিত্বে ‘উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ ও গণমাধ্যমের ভূমিকা’ শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী একথা বলেন। তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ মোশাররফ হোসেন সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে এবং তথ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত প্রধান অফিসার ফজলে রাব্বী সূচনা বক্তব্য রাখেন।
নৈতিকতা, মূল্যবোধ ও সঠিক আত্মপরিচয়ে বলীয়ান হয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের কলম ধরতে হবে উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, সমাজ ও রাষ্ট্্েরর বিভিন্ন স্তরে সামরিক-স্বৈরশাসন ও সাম্প্রদায়িকতার জমে থাকা আবর্জনা পরিস্কার করে দেশকে এগিয়ে নিতে সরকারকে সহায়তা করাও গণমাধ্যমের গুরুত্বপূর্ণ কাজ।
‘গণমাধ্যমকে তুলে ধরতে হবে এদেশের অর্থনীতির মূল তিনটি স্তম্ভ- কৃষক, পোষাক-শ্রমিক ও বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জনকারী প্রবাসীদের কথা। সেইসাথে সৎ উদ্যোক্তা ও বিভিন্ন পেশাজীবী মানুষের কথাও তুলে ধরতে হবে’, বলেন তিনি।
হাসানুল হক ইনু এসময় মনে করিয়ে দেন, ‘জঙ্গি-সন্ত্রাসী ও সাম্প্রদায়িক অপশক্তি এবং এদের সঙ্গীদের ক্ষমতা ও রাজনীতির বাইরে রাখলে গণতন্ত্রের কোনো কমতি হয় না বরং প্রাপ্তি ঘটে।’
‘শেখ হাসিনার দশ বিশেষ উদ্যোগ’, স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ এবং রূপকল্প ২০২১ ও ২০৪১ বিষয়ে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রেস ইন্সটিটিউটের মহাপরিচালক মো. শাহ আলমগীর, তথ্য অধিদফতরের সিনিয়র উপ-প্রধান তথ্য অফিসার (প্রেস) ফয়জুল হক প্রমূখ আলোচক হিসেবে অংশ নেন।
এরপর দুপুরে রাজধানীর দারুস সালামে বাংলাদেশ সিনেমা ও টেলিভিশন ইনস্টিটিউট (বিসিটিআই)-এ ‘চলচ্চিত্র ও টেলিভিশনে অভিনয় প্রশিক্ষণ কোর্সে’র সমাপনী অনুষ্ঠানেও প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণকারীদের মাঝে সনদ বিতরণ করেন তথ্যমন্ত্রী। ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক মো: রফিকুজ্জামান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।