ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় ও জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির (এনএএসপিডি) আয়োজনে আগামীকাল সোমবার থেকে ধানমন্ডির সুলতানা কামাল মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে শুরু হতে যাচ্ছে ‘বিশেষ শ্রেণির শিশু-কিশোরদের ক্রীড়া উৎসব-২০১৭’। মূলত ২৬তম আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস ও ১৯ তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষ্যে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। যেখানে ঢাকা বিভাগের বিভিন্ন স্কুল ও সংস্থার সব ধরনের প্রতিবন্ধী ও অটিজম শিশু-কিশোররা অংশ নিবে। দুইদিন ব্যাপী এই প্রতিযোগিতা মঙ্গলবার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হবে।

 

প্রতিযোগিতার বিষয়ে বিস্তারিত জানানোর জন্য আজ রোববার মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের অপারেটিভ ডিরেক্টর (স্পোর্টস এন্ড ওয়েলফেয়ার) এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন), জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির মহাসচিব ড. সেলিনা আক্তার ও ডিরেক্টর মুনিরা আক্তার।

 

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় ১৫টি ক্যাটাগোরিতে ৪২টি ইভেন্টে অনুষ্ঠিত হবে এই ক্রীড়া উৎসব। সাধারণত স্পেশাল ও প্যারা অলিম্পিকে যে ধরণের ইভেন্ট থাকে সেগুলো নিয়ে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিযোগিতায় ২০০ জন বিশেষ শিশু-কিশোররা অংশ নিবে। তাদের প্রত্যেককে ওয়ালটন গ্রুপের পক্ষ থেকে পুরস্কৃত করা হবে।

 

সংবাদ সম্মেলনে এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) বলেন, ‘গেল চার বছর ধরে জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির (এনএএসপিডি) সঙ্গে কাজ করছি। তারই ধারাবাহিকতায় এবারও তাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছি। বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে এই মাসে ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় বেশ কয়েকটি টুর্নামেন্ট রয়েছে। আমাদের ভালো লাগছে যে বিজয়ের মাসের প্রথম টুর্নামেন্টটি হতে যাচ্ছে বিশেষ শ্রেণির শিশু-কিশোরদের জন্য। ওয়ালটন পরিবার সব সময় এই বিশেষ শ্রেণির শিশু-কিশোরদের নিয়ে কাজ করতে আগ্রহী। আমরা বিশ্বাস করি বাংলাদেশে অনেক প্রতিভাবান প্রতিবন্ধী শিশু-কিশোর রয়েছে। এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে যাওয়া ২০০ জন শিশু-কিশোরকে ওয়ালটন গ্রুপের পক্ষ থেকে হোম অ্যাপ্লায়েন্স দিয়ে উৎসাহিত করা হবে। আশা করছি এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিশেষ শ্রেণির শিশু-কিশোররা আনন্দঘন সময় পার করবে।’

 

জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির (এনএএসপিডি) মহাসচিব সেলিনা আক্তার বলেন, ‘জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির (এনএএসপিডি) পক্ষ থেকে ওয়ালটন গ্রুপকে ধন্যবাদ জানাই। গেল কয়েক বছর ধরে আমাদের সঙ্গে ওয়ালটন গ্রুপ কাজ করছে। তারা এভাবে এগিয়ে আসায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এ ধরণের পিছিয়ে পড়া অসহায় প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য এগিয়ে আসা খুবই প্রয়োজন। আমরা জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতি (এনএএসপিডি) ২০০০ সাল থেকে সব ধরণের প্রতিবন্ধীদের নিয়ে কাজ করছি। বছরে বেশ কয়েকবার তাদের নিয়ে ক্রীড়া উৎসবের আয়োজন করি। তারই ধারাবাহিকতায় ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় দুইদিন ব্যাপী বিশেষ শিশু-কিশোরদের ক্রীড়া উৎসব অনুষ্ঠিত হবে। ২৬তম আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস ও ১৯ তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষ্যে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। যেখানে ঢাকা বিভাগের বিভিন্ন স্কুল ও সংস্থার সব ধরনের প্রতিবন্ধী ও অটিজম শিশু-কিশোররা অংশ নিবে। সাধারণত স্পেশাল ও প্যারা অলিম্পিকে যে ধরণের ইভেন্ট থাকে সেগুলো নিয়ে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।’