মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

ছাত্রীকে দ্বিতীয় বিয়ে করায় সাময়িক বরখাস্তকৃত বিতর্কিত শিক্ষক আশরাফুল আলম খান বকুলকে বিদ্যালয় থেকে অপসারণের দাবিতে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা শাহ্‌ গরীবুল্লাহ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা মানববন্ধন করেন। এ সময় শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে এ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন।

বুধবার (২৫ অক্টোবর) সকাল ১১ টার দিকে ঐ বালিকা বিদ্যালয়ের সামনে জাতীয় মহাসড়কে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এর আগেও ঐ শিক্ষক বকুলের ক্লাস বর্জন করে ছাত্রীরা আন্দোলন করেছিলেন। যার প্রেক্ষিতে শিক্ষক বকুলকে বিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়।

এসময় উক্ত মানববন্ধনে শিক্ষার্থীদের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করে তাদের আন্দোলনে শরিক হন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মশিউর রহমান মামুন। তবে এ মানববন্ধনে কোন শিক্ষককে উপস্থিত থাকতে দেখা যায়নি।

উল্লেখ্য হাতীবান্ধা শাহ্‌ গরীবুল্লাহ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের বি,এস,সি শিক্ষক আশরাফুল আলম খান বকুল এক ছাত্রীকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। মেয়েটি ঐ বিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রী ছিলেন এবং উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করার পরে বর্তমানে রংপুরে কোচিং করছেন।
ছাত্রীকে শিক্ষক বকুল বিয়ে করায় এটা মেনে নিতে পারছেননা ঐ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ঐ শিক্ষক বকুলকে বিদ্যালয় থেকে স্থায়িভাবে বহিষ্কার করা না হলে লাগাতার ক্লাস বর্জনের হুমকি দেন শিক্ষার্থীরা।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মশিউর রহমান মামুন বলেন, পৃথিবীতে মানুষ বাবা মায়ের পরেই শিক্ষকের স্থান দিয়েছেন। শিক্ষকের প্রতি ভরসা করে অভিভাবকেরা তাদের মেয়েকে বিদ্যালয়ে সু-শিক্ষার জন্য পাঠিয়ে নির্ভয়ে থাকেন। আর সেই বিশ্বাসকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে কিছু কুলাঙ্গার শিক্ষক সমাজের সম্মান ধ্বংস করে যাচ্ছে। ঐসব কুলাঙ্গার শিক্ষকের বিরুদ্ধে উপজেলা ছাত্রলীগ সর্বদায় ছিলো এখনো আছেন।
এছাড়াও ঐ কুলাঙ্গার শিক্ষক বকুলকে বিদ্যালয় থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের দাবি জানান এই ছাত্রলীগ সভাপতি।

ঐ বিদ্যালয়ের সহকারী ইংরেজি শিক্ষক শফিকুল ইসলাম বলেন, ঐ শিক্ষক বকুল প্রাক্তন ছাত্রীকে বিয়ে করার অপরাধে শিক্ষার্থীরা গত কয়েকদিন যাবত আন্দোলন করে আসছে। আজকেও চলমান শিক্ষার্থীরা তার পুনরাবৃত্তি ঘটায়। তারা ক্লাস বর্জন করে রাস্তায় দাঁড়িয়ে মানববন্ধ করেন।
এছাড়াও একজন শিক্ষক হিসাবে সকল ছাত্রীদের আন্দোলনে একাত্মতা ঘোষনা করেন শিক্ষক শফিকুল ইসলাম।

হাতীবান্ধা শাহ্‌ গরীবুল্লাহ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তবিবর রহমান  আসন্ন যে,এস,সি পরীক্ষার কেন্দ্র সচিবদের বোর্ড মিটিং এ দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে থাকায় তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।