রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশের শান্তিরক্ষীরা বিশ্বের বিভিন্ন সংঘাতময় অঞ্চলে শান্তি ও সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠায় উদাহরণ স্থাপন করেছে।
ইউনাইটেড নেশন্স মাল্টি ডাইমেনশনাল ইন্টিগ্রেটেড স্টাবিলাইজেশন মিশন ইন মালি’র (এমআইএনইউএসএমএ) ফোর্স কমান্ডার মেজর জেনারেল জেন পল ডিকোনিনক আজ বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে আবদুল হামিদ বলেন, বাংলাদেশের শান্তিরক্ষীরা বিভিন্ন সংঘাতকবলিত অঞ্চলে বিশ্ব শান্তি ও স্থিতিশীলতা পুনঃপ্রতিষ্ঠায় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এই ধারা অব্যাহত থাকবে।
বৈঠক শেষে রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মোহাম্মদ জয়নাল আবেদিন বাসসকে এ কথা বলেন।
রাষ্ট্রপতি বলেন, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব পিস সাপোর্ট এ্যান্ড ট্রেনিং ইতোমধ্যে দেশ ও বিদেশের শান্তিরক্ষীদের প্রশিক্ষণ প্রদানের একটি অনন্য কেন্দ্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।
তিনি ফোর্স কমান্ডারের বাংলাদেশ সফরের উল্লেখ করে বলেন, তার এই সফর বাংলাদেশী শান্তিরক্ষীরা জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে দায়িত্ব পালনে উৎসাহিত হবে।
মেজর জেনারেল ডিকোনিন্্ক জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে অন্তর্ভুক্তির পর থেকে বাংলাদেশী শান্তিরক্ষীদের উচ্চমানের পেশাদারিত্ব, নিষ্ঠা ও সাহসিকতার প্রশংসা করেন।
তিনি আশা পোষণ করেন যে, আগামী দিনগুলোতে বাংলাদেশের শান্তিরক্ষীরা সর্বোচ্চ সামর্র্থ্যরে মাধ্যমে দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনে সক্ষম হবে।
রাষ্ট্রপতির সংশ্লিষ্ট সচিবগণ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।