মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

লালমনিরহাটের পুলিশ সুপার “এসপি মুন্নি” পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে রিনা বেগম (৪৫) নামের এক নারীকে আটক করেছে র‌্যাব।

বুধবার রাতে মাগুরার শ্রীপুর থানার সব্দালপুর ইউনিয়নের সোনাইতন্দী গ্রাম থেকে  ওই নারীকে আটক করা হয়।
ফরিদপুর র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রইছ উদ্দিন এ তথ্য জানিয়েছেন।

অভিযোগ আছে, রিনা নিজেকে লালমনিরহাট জেলায় কর্মরত ‘এসপি মুন্নি’ পরিচয় দিয়ে পুলিশের চাকুরি প্রত্যাশীদের কাছ থেকে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে প্রার্থীদের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেন। এরই ধারাবাহিকতায় ঝিনাইদহর শৈলকূপা থানার হাটফাজিলপুর গ্রমের জাহাঙ্গীর বিশ্বাসকে (৩০) পুলিশের কনস্টেবল পদে চাকুরি দেওয়ার নাম করে নগদ ২ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা এবং দেড় ভরি স্বর্ণালংকার হাতিয়ে নেয় রিনা।

চাকরি না হওয়ায় প্রতারিত হয়েছেন মর্মে জাহাঙ্গীর বিশ্বাস বিষয়টি লিখিতভাবে র‌্যাব-৮ এ ফরিদপুর ক্যাম্পকে জানায় এবং লালমনিরহাট জেলায় কর্মরত কথিত নারী এসপি মুন্নির ইউনিফর্ম পরিহিত ছবি দেখায়। এ ব্যাপারে জাহাঙ্গির বিশ্বাস বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার মাগুরার শ্রীপুর থানায় একটি প্রতারণার মামলা করেন।

ফরিদপুর র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রইছ উদ্দিন জানান, তার নেতৃত্বে র‌্যাব সদস্যরা ওই প্রতারণার সাথে জড়িত রিনা বেগমকে বাড়ি থেকে আটক করেন। আটক রিনা বেগম জিজ্ঞাসাবাদে জানান, এসপি মুন্নি নাম ধারণকারী কারো অস্তিত্ব নেই। তিনি নিজেই বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে নিজের কন্ঠস্বর পরিবর্তন করে এসপি মুন্নি নাম ধারণ করে আসছেন।