মিয়ানমারে রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদকে শক্তিশালী ও দ্রুত পদক্ষেপ নিতে বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কারণ এই সহিংসতা ওই অঞ্চলকে হুমকির মুখে ফেলছে। এই তথ্য জানিয়েছেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। গতকাল বুধবার শান্তিরক্ষা কার্যক্রম সংস্কারের ওপর নিরাপত্তা কাউন্সিলের বৈঠকে এই কথা বলেন মাইক পেন্স।
মাইক পেন্স বলেন, সরকারি বাহিনীর ওপর হামলার কথা বলে রোহিঙ্গা গ্রাম জ্বালিয়ে দেওয়া হচ্ছে, ভয়ংকর হামলা চালানো হচ্ছে এবং রোহিঙ্গাদের বাড়ি ছাড়া করা হচ্ছে। পেন্স আবারো মিয়ানমারকে সামরিক অভিযান বন্ধ করতে বলেন এবং কূটনৈতিক পথে দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের দিকে এগিয়ে যাওয়ার আহবান জানান। পেন্স বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এবং আমি নিরাপত্তা পরিষদকে রোহিঙ্গা সংকটের সমাধানে বলিষ্ঠ ও দ্রুত পদক্ষেপ নিতে বলেছি। রোহিঙ্গাদের সহায়তা এবং তাদের আশা জাগাতে যা করা দরকার তার ব্যবস্থা করার কথাও বলেছি, জানান মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট।
গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইনে দেশটির সেনাবাহিনীর তথাকথিত ক্লিয়ারেন্স অপারেশন শুরু হওয়ার পর এ পর্যন্ত ৪ লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। জাতিসংঘ সামরিক বাহিনীর এক অভিযানকে জাতিগত নিধন হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের সমালোচনা করে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেন, সংস্থাটি এই নামের উপযুক্ত নয়। কারণ এতে ভয়াবহ মানবাধিকার লঙ্ঘনকারী অনেক দেশকে স্বাগত জানানো হয়েছে। রয়টার্স।