সরকার রোহিঙ্গাদের জন্য নির্দিষ্ট বাসস্থান, খাওয়া, চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছে। তাদের ব্যক্তিপর্যায়ে কোনো ধরনের বাড়িভাড়া, আশ্রয় কিংবা যাতায়াতে সাহায্য না করার আহ্বান জানিয়েছে পুলিশ সদর দফতর। শনিবার পুলিশ সদর দফতরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি-মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) সহেলী ফেরদৌস স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, সাম্প্রতিক মিয়ানমারের নাগরিক (রোহিঙ্গা সম্প্রদায়) যারা তাদের দেশ থেকে বিতাড়িত হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন তারা নিজ দেশে প্রত্যাবর্তন না করা পর্যন্ত নির্দিষ্ট ক্যাম্পে অবস্থান করবেন। তাদের অবস্থান এবং গতিবিধি শুধু কক্সবাজারের নির্দিষ্ট ক্যাম্পে সীমাবদ্ধ থাকবে। তারা ক্যাম্পের বাইরে তাদের আত্মীয়স্বজন অথবা পরিচিত ব্যক্তিদের বাড়িতে অবস্থান ও আশ্রয় গ্রহণ করতে পারবেন না। তাদের নির্দিষ্ট ক্যাম্পের বাইরে কেউ বাড়িভাড়া দিতে পারবেন না।
বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, রোহিঙ্গারা নির্দিষ্ট ক্যাম্পের বাইরে অন্যান্য স্থানে ছড়িয়ে পড়তে অথবা যাতায়াত করতে পারবে না। তারা সড়ক, রেল, নৌপথে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে গমন করতে পারবে না। সব ধরনের পরিবহনের চালক-শ্রমিক এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের রোহিঙ্গাদের পরিবহন না করার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে।
রোহিঙ্গা শরণার্থীদের কেউ আশ্রয়, বাড়িভাড়া দেয়ার অথবা তাদের এক স্থান থেকে অন্য স্থানে ছড়িয়ে পড়ার খবর জানলে স্থানীয় প্রশাসকে অবহিত করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।