জাকির সিকদার,রাজাপুর (ঝালকাঠি)সংবাদদাতা:
অর্ধেকেরও কম জনবল নিয়ে চলছে ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কার্যক্রম। এক দিকে ডাক্তারস্বল্পতায় চিকিৎসাসেবা থেকে যেমন বঞ্চিত হচ্ছে উপজেলার দুইলাখ মানুষ, তেমনি জনবল সঙ্কটের কারণে মাঠপর্যায়ের কার্যক্রমেও স্থবিরতা দেখা দিয়েছে। উপজেলার ৫০ শয্যা বিশিস্ট স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মোট ১৪৭টি পদের মধ্যে ডাক্তারসহ দীর্ঘদিন ধরে ৫০টি পদ শূন্য রয়েছে। এর মধ্যে ৫০টি মাঠ কর্মী পদের মধ্যে ৪৫টি পদ পুর্ন রয়েছে এবং ৫টি পদ শূন্য রয়েছে। ৩২টি নার্সের পদের মধ্যে ২২টি পদ পুর্ন রয়েছে এবং ১০টি পদ শূন্য রয়েছে। সাপোর্ট স্টাফ ১৯টি পদের মধ্যে ১২টি পদ পুর্ন রয়েছে এবং ৭টি পদ শূন্য রয়েছে। মেডিকেল টেকনোলজিস্ট ৮টি পদের মধ্যে ৩টি পদ পুর্ন রয়েছে এবং ৫টি পদ শূন্য রয়েছে। ডেন্টাল সার্জন ১টি পদের কাগজে কলমে ১জন থাকলেও বাস্তবে দীর্ঘদিন ধরে রাজাপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নেই।
অন্যান্য কর্মচারিদের ১৫টি পদের মধ্যে ১১টি পদ পুর্ন রয়েছে এবং ৪টি পদ শূন্য রয়েছে। ডাক্তারদের ২২টি পদের মধ্যে ৩টি পদ কাগজে কলমে পূর্ন রয়েছে এবং ৫টি পদ শূন্য রয়েছে। গত ৩০ নভেম্বর সকাল ১১টার দিকে সরেজমিনে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে গিয়ে ১জন ছাড়া কোন ডাক্তার পাওয়া যায়নি। তার নাম আসিফুজ্জামান। তার নিয়োগ উপজেলার গালুয়া ইউনিয়নের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে থাকলেও উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে কোন ডাক্তার না থাকায় গালুয়া ইউনিয়নে ওই কেন্দ্রে রোগী না দেখে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে রোগি দেখতে হচ্ছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বর্তমানে কাগজে কলমে ৩ জন ডাক্তারের মধ্যে আর এমও ডাক্তার আবুল খয়ের মাহমুদ রাসেল দুই মাসের ট্রেনিংয়ে ঢাকায় রয়েছেন। ডাক্তার ইলিয়াস হোসেন ১৫ দিনের ট্রেনিংয়ে গিয়েছেন কিন্তু তার সেই ট্রেনিংয়ের সময় শেষ হওয়ার আগেই আরো একটি ট্রেনিংয়ের সিদ্ধান্ত হয়েছে। রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা ডাক্তার মাহাবুবুর রহমান (টিএইচও) প্রতিদিন বিভিন্ন সভা সেমিনারসহ প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে এবং ওই দিন তিনি ঝালকাঠি জেলা সদরে মিটিংয়ে রয়েছেন বলে জানা গেছে।
এ বিষয়ে ঝালকাঠি সিভিল সার্জন ডাক্তার শ্যামল কৃষ্ণ হালদার বলেন, রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের ডাক্তার সংকটের বিষয়ে প্রতি সপ্তাহের সোমবারে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উর্ধ্বতন কর্র্তৃ পক্ষকে জানাচ্ছি এবং তারা আশ^াস্ত করেছেন অচিরেই কাম্য সংখ্যক ডাক্তার দিবেন। এবিষয়ে বরিশালে আঞ্চলিক মহাপরিচাল ডাক্তার মাহাবুবুর রহহমান বলেন(ডিডি),ডাক্তার সল্পতা আছে, এ ব্যাপারে মন্ত্রনালয়কে জানানো হয়েছে, কিছু ডাক্তারদের ফাউন্ডেশন ট্রেনিংয়ে পাঠানো হয়েছে।