পবিত্র রমজান মাসকে সামনে রেখে সকলের জন্য নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে উৎপাদক থেকে ভোক্তার পাত পর্যন্ত ভ্যালু চেইন এর বিভিন্ন স্তরের সমস্যাসমূহ চিহ্নিতকরণ এবং সমাধানে করণীয় নির্ধারনে লক্ষে ১২ মে ২০১৮ তারিখে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন এর ৩-ডি সেমিনার হলে ‘নিরাপদ খাদ্য উৎপাদক, ভোক্তা, উদ্যোক্তা এবং নীতি-নির্ধারক সম্মেলন-২০১৮’ অনুষ্ঠিত হয়েছে ।
সম্মেলনে বক্তারা উল্লেখ করেন নিরাপদ খাদ্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে হলে উৎপাদক থেকে শুরু করে ভোক্তা পর্যন্ত একটি কার্যকর ভ্যালু চেইন গড়ে তোলা দরকার।  উৎপাদক থেকে শুরু করে প্রক্রিয়াজাতকরণ এবং বিপণন পর্যায়ে অর্থায়ন নিশ্চিত করার মধ্যে দিয়ে সংশ্লিষ্ট সকলকে সমন্বিত করে কাজ করার মাধ্যমেই কেবল টেকসই নিরাপদ খাদ্য ব্যবস্থা গড়ে তোলা সম্ভব।
আয়োজকদের পক্ষ থেকে উল্লেখ করা হয় দুই ধাপে সম্মেলনটি আয়োজন করা হয়েছে। আজ সম্মেলনের প্রথম ধাপে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আগত নিরাপদ খাদ্য উৎপাদক, ভোক্তা এবং উদ্যোক্তাদের বক্তব্যে মাধ্যমে নিরাপদ খাদ্য ব্যবস্থার বিরাজমান সবল ও দূর্বল দিকগুলো সনাক্ত এবং করণীয় চিহ্নিতকরণ করা হয়, নিরাপদ খাদ্য ব্যবস্থার সকল স্তরে বিশেষ করে ক্ষুদ্র উৎপাদক ও উদ্যোক্তা পর্যায়ে অর্থায়ন বৃদ্ধি এবং সহজলভ্য করার দাবী তুলে ধরা হয় এবং বাংলাদেশে নিরাপদ খাদ্য ব্যবস্থায় নিয়োজিত সংশ্লিষ্ট সকলের ঐক্যবদ্ধ উদ্যোগকে শক্তিশালী করার বিষয়ে জোর দেয়া হয়। এছাড়াও নিরাপদ খাদ্য উৎপাদন বিষয়ক বিভিন্ন সুপারিশমালা তুলে ধরা হয়। আয়োজকদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে সম্মেলনের ২য় পর্যায়ে নীতি-নির্ধারকদের নিয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে প্রাপ্ত সুপারিশসমূহ  তুলে ধরা হবে।
আয়োজিত সম্মেলনে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশন এর নির্বাহী পরিচালক ডঃ ওয়ায়েস কবীর, এফএও ফুড সেফটি প্রজেক্ট এর সিনিয়র ন্যাশনাল এডভাইজার অধ্যাপক ডঃ শাহ মনির হোসেন, হরটেক্স ফাউন্ডেশন এর মহাব্যবস্থাপক ডঃ মঞ্জুরুল হান্নান, নিরাপদ খাদ্য বাংলাদেশ এর সাধারণ সম্পাদক ও ওয়েব ফাউন্ডেশন এর নির্বাহী পরিচালক মহসীন আলী, সাবেক কৃষি সচিব আনোয়ার ফারুক, মৎস অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক সৈয়দ আরিফ আজাদ, ইস্পাহানি এগ্রো লিমিটেড এর পরিচালক ফৌজিয়া ইয়াসমিন। এছাড়াও দেশের শীর্ষস্থানীয় খাদ্য বিপণন প্রতিষ্ঠানসহ সারাদেশের প্রায় দেড় শতাধিক প্রতিনিধি দিনব্যাপী এই সম্মেলনে অংশ নিয়েছেন ।