মো: ফখরুজ্জামান,:-জামালপুর সংবাদদাতা ॥ জামালপুরের মেলান্দহে ১৬ আগস্ট একদিনে ৪জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে উমির উদ্দিন পাইলট স্কুলের ২স্কুল ছাত্র, একজন পথচারী বন্যার পানিতে পড়ে নিখুঁজ হয়। নিখোঁজ ছাত্রদ্বয় হলো-নাগেরপাড়া গ্রামের লিয়াকত আলী ওরফে লাইকনের ছেলে জিল্লুর রহমান (১৬), নলবাড়ির ময়না শেখের ছেলে সজিব আহমেদ (১৬)। এরা উভয়ই ১০ম শ্রেণির ছাত্র এবং পথচারী জামালপুরের লাল মিয়া (৪০)। বিকেল ৪টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ডুবুরিরা নিখোঁজ ছাত্র জিল্লুরের লাশ উদ্বার করলেও সজিব এবং পথচারী লাল মিয়ার (৪০) লাশ উদ্বার করতে পারে নি। অপরদিকে ১৫ আগস্ট বিকেলে টনকি গ্রামের পাগুর ছেলে ইসলামপরু কলেজ ছাত্র কমলের লাশও এখনো উদ্ধার করতে পারে নি ডুবুরিরা।
কুলিয়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান জবেদ আলী ও উমির উদ্দিন পাইলট স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোহন তালুকদার জানান-বন্যার পানিতে মেলান্দহ-ভালুকা সড়কের চুঙ্গিপুলের উপর দাড়িয়ে সেলফি তুলতে গিয়ে সজিব পানিতে পড়ে যায়। এ সময় তার বন্ধু জিল্লুর এবং পথচারী লাল মিয়া উদ্বার করতে গেলে প্রবল ¯্রােতে তাদেরকে ভাসিয়ে নিয়ে যায়।
একই দিনে মাহমুদপুর আদবাড়িয়া গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে আজিমত আলী (৩২)। বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মারা যান। মাহমুদপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ জানান-১৬আগস্ট সকাল ১০টার দিকে বিদ্যুতের তার ছিড়ে ঘরের মেঝেতে পড়লে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। #