ঢাকা, ২৮ আশ্বিন (১৩ অক্টোবর) :
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম বলেছেন, লাখ লাখ মানুষকে ঘরছাড়া করে শান্তিপূর্ণ ও স্থিতিশীল বিশ্ব গড়া সম্ভব নয়। মানুষের নাগরিকত্ব ও বাসস্থান কোন দেশ অস্বীকার করতে পারে না। আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষা, জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধে মানুষের মৌলিক মানবিক অধিকারকে স্বীকার করে নিতে হবে।

মন্ত্রী আজ ঢাকায় ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস-২০১৭ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ শাহ্ কামাল, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ রিয়াজ আহমেদ, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আলী আহমেদ খান, সশস্ত্রবাহিনী বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এজাজুল বার চৌধুরী, সাইক্লোন প্রিপেয়ার্ডনেস প্রোগ্রামের পরিচালক আহমেদুল কবির প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য “দুর্যোগ সহনীয় আবাস গড়ি, নিরাপদে বাস করি”। দিবসটিকে কেন্দ্র করে জাতীয় পর্যায় থেকে উপজেলা পর্যন্ত বিভিন্ন অনুষ্ঠান পালন করা হয়। অনুষ্ঠানমালার মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন পত্রিকায় ক্রোড়পত্র প্রকাশ, পোস্টার স্থাপন, লিফলেট বিতরণ, টেলিভিশনে আলোচনা, রাস্তা সজ্জা, প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন ইত্যাদি।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী বলেন, সেন্দাই ফ্রেমওয়ার্কের টার্গেট অনুযায়ী এ বছরের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে, যেখানে ঘরহীন মানুষের সংখ্যা দৃশ্যমান হারে কমিয়ে আনার কথা বলা হয়েছে। তিনি বলেন, কোন কোন দেশের স্বেচ্ছাচারিতা ও বর্বরতার কারণে ঘরহীন মানুষের সংখ্যা হ্রাসের পরিবর্তে বৃদ্ধি পেয়েছে। এটা আন্তর্জাতিক অঙ্গীকারের বরখেলাপ। রোহিঙ্গা ইস্যুকে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, লাখ লাখ মানুষকে ঘরহীন করার হীনকর্মের বিরুদ্ধে বিশ্ব সম্প্রদায়কে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। রোহিঙ্গা দমনের বিষয়টি আন্তর্জাতিকভাবে জাতিগত দমন হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। মিয়ানমারকে এর দায় নিতে হবে।