শাহারিয়া শাহাদাৎ,রিপোটার
চাঁপাইনবাবগঞ্জ:-চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর ও শিবগঞ্জ উপজেলায় সরকারি হাসপাতাল, বেসরকারি ক্লিনিক ও হোটেল-রেস্টুরেন্টে অভিযান চালিয়ে ৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও সাত দালালকে সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে র‌্যাব-৫’র ভ্রাম্যমান আদালত। র‌্যাবের সদর দপ্তরের হাকিম আনিসুর রহমানের নেতৃত্বে র‌্যাব-৫ এর সদস্যরা এ অভিযান চালান।
চাঁপাইনবাবগঞ্জে র‌্যাব-৫’র কোম্পানী কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাকিবুল ইসলাম খান এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ও জনবলের অভাব এবং অপরিচ্ছন্ন পরিবেশের কারণে শিবগঞ্জ উপজেলার আল মদিনা ইসলামী হাসপাতালকে ২ লাখ, শিবগঞ্জ নার্সিং হোমকে ১ লাখ, জমজম ক্লিনিক ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টারকে ৫০ হাজার, মডার্ণ হাসপাতাল ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টারকে ৫০ হাজার ও কানসাট জেনারেল হাসপাতালকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে খাদ্যদ্রব্য প্রস্তুত করার অপরাধে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের উদয়ন মোড়ে অবস্থিত আলাউদ্দিন হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টকে পৃথক মামলায় চার লাখ টাকা ও বিশ্বরোড মোড়ে অবস্থিত তামান্না সুইটস এন্ড রেস্টুরেন্টকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এর আগে সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে অভিযানে দন্ডিত সাত দালালকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এরা হাসপাতালে আসা দরিদ্র রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা করে বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিকগুলোতে নিয়ে যায়। অনেকক্ষেত্রে বলপ্রয়োগও করে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার গড়াইপাড়া গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে আব্দুল রাকিব (২৫), তেরোরশিয়া খাকচাপাড়া গ্রামের মোজাম্মেল হকের ছেলে শামীম রেজা (২০), মসজিদপাড়া মহল্লার আলোক আলীর ছেলে ছাবদুল হোসেন (৩৮), নামোরাজারামপুর গ্রামের জামাল উদ্দিনের ছেলে মো. সানাউল্লাহ (২৬), সোনাপট্টি এলাকার হাসেন আলীর ছেলে গোলাম কবির (২৭), আকুন্দবাড়িয়া গ্রামের মৃত আজহারুল বিশ্বাসের ছেলে ফিরোজ কবির (২৫) ও রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার হাতনাবাদ এলাকার মঞ্জুর রহমানের ছেলে আসমাউল হক (২৬)।