সিলেট ও চট্টগ্রামের সঙ্গে ঢাকার রেল যোগাযোগের জন্য নির্মাণ করা দ্বিতীয় ভৈরব ও দ্বিতীয় তিতাস সেতু আনুষ্ঠানিকভাবে খুলে দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সেতু দুটির উদ্বোধন করেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

একই সঙ্গে ঢাকা-কলকাতা রুটের মৈত্রী ট্রেনের ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট স্টেশন ও কলকাতার রেলওয়েস্টেশনে কাস্টমস ও ইমিগ্রেশনের কার্যক্রম এবং খুলনা-কলকাতা রেলপথে ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’ও উদ্বোধন করেন দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে, আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের জন্য ভৈরবে রেল সেতুর নিচে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক ঢাকা, কলকাতা ও দিল্লির সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে উদ্বোধন কার্যক্রম চালান।

ভারতীয় লাইন অফ ক্রেডিট (এলওসি)’র অর্থায়নে এই সেতুগুলো নির্মাণ করা হয়। নির্মাণ কাজ শেষে সেতুটি খুলে দেওয়া হয়েছে। একটি ডেমু ট্রেন দিয়ে ভৈরব সেতুটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।