ঢাকা, ১৬ আগস্ট ২০১৭ খ্রি.
ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এম.পি. জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে হারানোর শোককে শক্তিতে রূপান্তরিত করে উন্নত বাংলাদেশ গড়ে তোলার লক্ষ্যে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।
আজ বুধবার জাতির পিতা প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভূমিমন্ত্রী এ আহ্বান জানান।
মন্ত্রী বলেন, অফিসিয়াল কাজকর্মের বাইরে অনেক জাতীয় দিবস, শহীদ দিবস, ১৫ আগস্ট পার করে এসেছি, এসব বিষয় নিয়ে এর আগে এতদিন নিরবতা লক্ষ্য করেছি, সে গন্ডি থেকে আমরা এখন বেরিয়ে আসতে পেরেছি। মন্ত্রী বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের নৃশংসতম হত্যা পৃথিবীর সর্বোচ্চ নৃশংস হত্যাকান্ড। মন্ত্রী ৭৫ এর ১৫ আগস্ট কালোরাতের সেই হত্যাকন্ডে শহীদ সকলের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু সারাজীবন বঞ্চিত মানুষের জন্য সংগ্রাম করে গেছেন, প্রশাসনে এদেশের মানুষকে দাবিয়ে রাখার যে বঞ্চনা পশ্চিম পাকিস্তানিরা রচনা করে গিয়েছিল, স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ উপহার দিয়ে সেই মানুষদের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু। একটি নতুন দেশগড়া ও বিশ্ব মানচিত্রে বাঙালি জাতীয়তাবাদ উপহার দিতে বঙ্গবন্ধুর অসামান্য অবদান ও ভূমিকার কথা গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। মন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতির জন্য একটি পবিত্র সংবিধান রচনা করে গিয়েছেন। তিনি সংবিধানে প্রতি দায়ভার থেকে যার যার কাজ চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান।
ভূমি সচিব ড. মুজিবুর রহমান হাওলাদার সকলকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী, খোকা থেকে বঙ্গবন্ধু, দি পয়েট অব পলিটিকস বইগুলো বেশি বেশি পড়ার আহ্বান জানান।
পরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেসাসহ ১৫ আগস্ট শাহাদতবরণকারী সকলের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয়। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন আন্তর্জাতিক ক্বারি পীরজাদা মাওলানা ওমর ফারুক আল নোমানী।
ভূমি সচিব ড. মুজিবুর রহমান হাওলাদারের সভাপতিত্বে এসময় অন্যান্যের মধ্যে ভূমি আপীল বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. আবদুল হান্নান, ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শেখ আব্দুল আহাদ, ভূমি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এ.ইউ.এস.এম. সাইফুল্লাহ, ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসার্স ও কর্মচারি কল্যাণ পরিষদের সভাপতি রেজাউল করিম পলাশ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন মন্ত্রণালয়ের ব্যক্তিগত অফিসার হুমায়ূন কবীর।