ঢাকা, ৬ ডিসেম্বর ২০১৭ : আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) থেকে ঢাকায় শুরু হচ্ছে আইসিটি আইসিটি অস্কার খ্যাত ১৭তম অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস ঢাকা ২০১৭। সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের তত্বাবধায়নে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর এবং বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) যৌথভাবে ৭ থেকে ১০ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে এই আন্তর্জাতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে।

এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বৃহত্তম সংগঠন এশিয়া প্যাসিফিক আইসিটি অ্যালায়েন্স (অ্যাপিকটা), এই অঞ্চলের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নের পাশাপাশি সম্ভাবনাময় ও সফল উদ্যোগ, সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর সেবার স্বীকৃতি দিতে প্রতিবছর অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডসের আয়োজন করে থাকে। এবারই প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

২০১৫ সালে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) অ্যাপিকটার সদস্যপদ লাভ করে। সদস্য হওয়ার পর বাংলাদেশে দু’বার কার্যনির্বাহী কমিটির সভা হয়েছে। ২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডসে অংশ নিয়ে বাংলাদেশ পুরস্কারও জিতেছে। সদস্যপদ পাওয়ার মাত্র ২ বছরের মধ্যে অর্থাৎ নবীনতম সদস্য হিসেবে অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস এর এই আয়োজন অ্যাপিকটার ইতিহাসে প্রথম।

বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ও ১৭তম অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস ঢাকা ২০১৭ এর আহ্বায়ক রাসেল টি আহমেদ বলেন, ১৬টি দেশ থেকে আগত চার শতাধিক বিদেশি অতিথিদের নিয়ে এ ধরণের আয়োজন বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের জন্য প্রথমবারের মতো ঘটনা। বিষয়টি মাথায় রেখে ও বাংলাদেশের মান সমুন্নত রাখতে আমরা অংশগ্রহণকারীদের নিরাপত্তা, যোগাযোগ ব্যবস্থা, ভ্রমণসহ বিভিন্ন সুবিধা নিশ্চিত করেছি। কয়েকটি স্তরে নিরাপত্তার পাশাপাশি তাদের আবাসনের জন্য নির্ধারিত হোটেলগুলোতেও বিশেষ নিরাপত্তা ও হেল্পডেস্ক এর ব্যবস্থা রয়েছে। টেলিটকের সহযোগিতায় তাদেরকে বিনামূল্যে ইন্টারনেটসহ সিম প্রদান করা হচ্ছে। উবারের সহযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের ভ্রমণ সহজ ও নিরাপদ করা হচ্ছে। একইসাথে এক হোটেল থেকে অন্য হোটেল এবং অনুষ্ঠানস্থলে যাতায়াতের জন্য শাটল সার্ভিস রয়েছে। আয়োজনকে সফল করতে প্রায় ১০০ জন নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। পাশাপাশি আয়োজনকে উৎসবমুখর করতে বিশেষ পদক্ষেপও নেওয়া হয়েছে। আমন্ত্রিত প্রতিযোগিদের নিয়ে ওয়েলকাম রিসেপশন, বাংলাদেশ নাইট ও হংকং নাইট অনুষ্ঠিত হবে। ১০ ডিসেম্বর বিকেলে ১৭তম অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস ঢাকা ২০১৭ এর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি আরও বলেন, এই আয়োজন বাংলাদেশ ও বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের অগ্রগতি এবং বাংলাদেশে বিনিয়োগের সম্ভাবনা ও সুবিধাগুলো বিশ্বের সামনে তুলে ধরার একটা বিরাট সুযোগ। তাই এই আয়োজনকে সফল করতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর, বিডা, অংশীদার প্রতিষ্ঠানগুলোসহ সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ ছাড়াও অ্যাপিকটার সদস্য দেশগুলো হলো অস্ট্রেলিয়া, ব্রুনেই দারুসসালাম, চীন, চীনা তাইপে, হংকং, ইন্দোনেশিয়া, জাপান, ম্যাকাও, মালয়েশিয়া, মিয়ানমার, পাকিস্তান, সিঙ্গাপুর, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম। অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস ২০১৭ আয়োজন স¤পর্কে //apicta.org.bd/ ওয়েবসাইট থেকে বিস্তারিত জানা যাবে।

 

 

 

বাংলাদেশে অনুষ্ঠিতব্য ১৭তম অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

* অংশগ্রহণকারী দেশ – ১৬টি
* ক্যাটাগরি – ১৭টি
* আন্তর্জাতিক প্রকল্প – ১৪১ টি
* বাংলাদেশি প্রকল্প – ৪৭টি
* বিদেশি প্রতিযোগির সংখ্যা – ৩৬৬ জন
* বাংলাদেশি প্রতিযোগির সংখ্যা – ১৬৬ জন
* আন্তর্জাতিক বিচারক – ৫৬ জন
* বাংলাদেশি বিচারক – ১৭ জন
* প্রধান বিচারক – জনাব আবদুল্লাহ এইচ কাফি, সাবেক চেয়ারম্যান, অ্যাসোসিও
* বাংলাদেশ ইকোনমি কো-অর্ডিনেটর – জনাব উত্তম কুমার পাল, পরিচালক, বেসিস
* বিচারক সমন্বয়ক – জনাব এম রাশিদুল হাসান, সহ-সভাপতি, বেসিস
* অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস ২০১৭ আহ্বায়ক – জনাব রাসেল টি আহমেদ, জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি, বেসিস

মূল আয়োজনকে সামনে রেখে এবার বেশ কিছু বাড়তি আয়োজনও থাকছে:
* বাংলাদেশ নাইট – বিদেশি প্রতিনিধিদের সামনে বাংলাদেশ ও দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতকে তুলে ধরার সুযোগ।
* বিজনেস টু বিজনেস (বিটুবি) বৈঠক – অংশগ্রহণকারী বিদেশি ও আগ্রহী বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ব্যবসায়ীক উন্নয়নের সম্ভাবনার জন্য বৈঠক।
* ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড – আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য আলাদা প্যাভিলিয়ন, আন্তর্জাতিক আলোচক/বক্তাদের ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে অংশগ্রহণ, বিদেশি প্রতিনিধিদের ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড পরিদর্শন।ৃ
* পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান – তথ্যপ্রযুক্তি খাতের অস্কার হিসেবে স্বীকৃত অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস এর জাঁকজমক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান।