এন.আই.মিলন, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি- দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আ’লীগ অফিসে ব্যক্তিগত সাংবাদিক সম্মেলন করার ঘোসনা দিলেও পাটি অফিসটি নেতারা দখলে নেওয়ার কারনে আবশেষে নিজ বাড়িতে সাংবাদ সম্মেলন করতে বাধ্য হলেন। শহরে পুলিশ মোতায়েন।
বীরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান, সাবেক এমপি আমিনুল ইসলাম গত ১৮ অক্টোবর সকালে বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে দিনাজপুর-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য, জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মনোরঞ্জন শীল গোপাল ও আওয়ামীলীগের নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যানদের বিরুদ্ধে সাংবাদিক সম্মেলন করার ঘোসনা দিলে স্থানীয় নেতা কর্মিরা দলীয় অফিসে অবস্থান নেওয়ার কারনে আবশেষে দৈনিক বাজার সংলগ্ন নিজ বাড়িতে সাংবাদ সম্মেলন করতে বাধ্য হলেন। এসময় আইন শৃক্ষলার পরিস্থিতি নিয়োন্ত্রনে রাখতে শহরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
সাংবাদিক সম্মেলনে উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লিখিত বক্তব্য পাঠ করে জানায়, গত ১৪ অক্টোবর দিনাজপুর প্রেসক্লাবে বীরগঞ্জ উপজেলার মরিচা ইউপি চেয়ারম্যান আতাহারুল ইসলাম চৌধুরী হেলাল এমপি মনোরঞ্জনশীল গোপালের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে ইউপি চেয়ারম্যানগন উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুল ইসলামের বিরুদ্ধে উদ্দেশ্য প্রনোদিত, মিথ্যা, বানোয়াট, উক্তিমুলে ভিত্তিহীন একটি সাংবাদিক সম্মেলন করানো হয়। ফলে এলাকার গন মানুষের পরিক্ষিত নেতা আমিনুল ইসলামের রাজনৈতিক ক্যারিয়ার নষ্ট সহ জনগনের মধ্যে বিব্রান্তি ছড়িয়ে তাকে ছোট করা হয়েছে বলে সাংবাদিকদের মাধ্যমে পত্রিকায় প্রকাশ করে ন্যায় বিচার কামনা করেন। বীরগঞ্জ-কাহারোল এলাকায় সরকারের উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডে এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল ব্যপক অনিয়ম-দূর্নীতি, টিআর-কাবিখা-কাবিটা লুটপাট, মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের চাকুরী না দিয়ে টাকার বিনিময় জামাত-শিবির-বিএনপি’র লোকদের চাকুরী দেয়া সহ দলীয় নেতাদের উপর মামলা-হামলার কথা উল্লেখ করেন। এসময় আওয়ামীলীগ নেতা রাজিউর রহমান রাজু, প্রভাষক জিয়াউর রহমান জিয়া, তরিকুল মেম্বার, মোস্তাক আহম্মেদ মানিক, আবুল খাইর, রবিউল ইসলাম সাবুল, রহমত আলী, আশিকুল চৌধুরী, অরুন চন্দ্র দাস, আনোয়ারুল ইসলাম, উপজেলা কুষক লীগ সভাপতি শিবলী সাদিক সহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
অপর দিকে বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে তাৎক্ষনিক উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলামের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভায় বক্তাগন বলেন, ১০ সেপ্টেম্বর উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে বন্যা পরবর্তী করনীয় বিষয় দলীয় নেতৃবৃন্দ ও সুধীজনদের যৌথ সভায় জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি দিনাজপুর-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি’র জনপ্রিয়তা দেখে ভয় পেয়ে তার ব্যক্তিগত আক্রষের কারনে গালিগালাজ করে সুনাম ক্ষুন্য করার চেষ্টা করে। এ সময় উপজেলা আ’লীগ ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক জেলা পরিষদ সদস্য নুর ইসলাম নুর, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক শামিম ফিরোজ আলম, পৌর আ’লীগ সভাপতি মোশারফ হোসেন বাবুল, সাধারন সম্পাদক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম, যুব ও ক্রিয়া বিষয়ক সম্পাদক ইয়াছিন আলী, রাসেল ইসলাম বক্তব্য রাখেন।
সংবাদ সম্মেলনের খবর ছড়িয়ে পড়লে আইন শৃক্ষলার পরিস্থিতি নিয়োন্ত্রনে রাখতে প্রশাসন সকাল থেকে আ’লীগ দলীয় কার্যালয় ও পুরাতন শহীদ মিনার চত্তরসহ শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।