বীরগঞ্জে স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসাসহ উচ্চুস্থানে আশ্রয় নিয়ে খাদ্য সংকটে ভুগছে, পঞ্চগড়ের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্নর আশংকা
এন.আই.মিলন, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি- টানা ভারী বর্ষনে দিনাজপুরের বীরগঞ্জে পানিবন্ধি মানুষ স্কুল-কলেজও মাদ্রাসাসহ উচ্চুস্থানে আশ্রয় নিয়ে খাদ্য সংকটে ভুগছে। ঢাকার সাথে ঠাকুরগাঁও-পঞ্চগড়ের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশংকা রয়েছে।
টানা ভারী বর্ষনে বীরগঞ্জের আশ্রয়হীন মানুষ ও গরু, বাছুর, ছাগল মুরগী নিয়ে স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসাগুলিতে অবস্থান নিয়েছে, খাদ্যাভাব সহ মহামারির আশঙ্কা। তলিয়ে গেছে হাজার হাজার একর জমির বীজতলা, নষ্ট হয়েছে অনেক কাচা বাড়ীঘর-গাছপালা, গৃহহীন হয়েছে অসংখ্য মানুষ। বিপদ সীমার উপর দিয়ে বয়ে চলেছে ঢেপা, পূর্নভবা ও আত্রাই নদী। মারাত্মক ঝুকিপুর্ন ও ভয়াবহ অবস্থায় রয়েছে ঢেপা নদীর উপর স্লুইজ গেট।
বীরগঞ্জ উপজেলা শহরের সাথে গোলাপগঞ্জ-বীরগঞ্জ, বীরগঞ্জ-ঝাডবাড়ী, দেবীগঞ্জ পাকা সড়ক পানিতে ডুবে যাওয়ায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পেড়েছে। রাস্তা ব্রিজ গুলি পুরাতন হওয়ায় যে কোন মুহুর্তে দূর্ঘটনায় কবলিত হয়ে প্রাণহানী ঘটতে পারে। এছাও ঢাকা-পঞ্চগড়ের মহাসড়ক ডুবে পানি উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় যে কোন সময় ঢাকার সাথে ঠাকুরগাঁও-পঞ্চগড়ের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশংকা রয়েছে। ঝাডবাড়ীর ব্রীজ ভেঙ্গে কয়েকটি গ্রাম দ্বীপে পরিনত হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আলম হোসেন জানায়, উপজেলা চেয়ারম্যান সাবেক এমপি আমিনুল ইসলাম সহ ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা সমুহ পরিদর্শন করেছেন তারা।
চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি মরিচা ইউপি চেয়ারম্যান আতাহারুল ইসলাম চৌধুরী হেলাল জানান, তার ইউনিয়নের বোচাঁপুকুর, বাদলাপড়া, কোণপাড়া সহ বিভিন্ন এলাকার বানভাসী গৃহহীন মানুষ বোঁচাপুকুর প্রাথমিক বিদ্যালয়, সাতখামার উচ্চ বিদ্যালয় ও মরিচা মাদ্রাসায় অস্থায়ী আশ্রয় কেন্দ্রে বসবাস শুরু করেছে।
নিজপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমএ খালেক সরকার জানায়, নিজপাড়া, বলরামপুর, আওলাকুড়ী, নখাপাড়া, শম্ভুগাও, প্রেমবাজার, খলসী বাজারসহ অধিকাংশ এলাকা প্লাবিত হয়ে বাজার সংলগ্ন ঢেপা নদীর ব্রীজের পশ্চিম তীর কাঁচা রাস্তা ভেঙ্গে গিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। গৃহহীনরা বিভিন্ন মাদ্রাসা ও স্কুল কলেজে অবস্থান নিচ্ছে।
উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা আব্দুল হাই সরকার জানায়, পুরো উপজেলায় তাদের নজরদারী রয়েছে, জনগনের পাশে তারা ছিলো ও আছে।
অপরদিকে, বীরগঞ্জ পৌরশহর সংলগ্ন উল্লাস সিনেমা হল এলাকায় ঢাকা-পঞ্চগড়ের মহাসড়ক ডুবে পানি উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় যে কোন মহুর্তে রাস্তা ভেঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশংকা রয়েছে।
সচেতন মহলের দাবি আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে জরুরী ভাবে ত্রান সামগ্রী সহ চিকিৎসা সেবা প্রয়োজন।
বীরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) আব্দুল গনি জানায়, পুলিশ প্রশাষন বানভাসি জনগনের পাশে দাড়িয়েছে। তারা দিন রাত জনগনের সেবায় কাজ কওে যাচ্ছে। মহাসড়কটিতে অবস্থান নিয়ে জনগনের সহযোগিতায় গাড়ীগুলি সঠিক রাস্তায় চলালের ব্যবস্থায় নিয়োজিত রয়েছে।