মেহেদী হাসান উজ্জ্বল, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি
বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে শনিবার দিনাজপুরের ফুলবাড়ী ট্র্যাজেডি দিবস পালিত হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল কালো পতাকা উত্তোলন ও কালোব্যাজ ধারণ, শোক র‌্যালী, শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ, স্মরণসভা ইত্যাদি। সামবেশে বক্তারা দ্রুত ফুলবাড়ী ৬ দফা চুক্তি বাস্তবায়নের দাবি জানিয়ে আগামী দিনের কর্মসূচী ঘোষনা করেন। কর্মসূচীর মধ্যে আগামী ১১ অক্টোবর ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদে সমাবেশ, অবস্থান এবং স্মারকলিপি পেশ এর পরও দাবী না মানলে ১৪ নভেম্বর দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান ধর্মঘট ও প্রধান মন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান।
শনিবার তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুত্ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ফুলবাড়ীতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচি পালন করে। সকাল সাড়ে ৬টায় কালো পতাকা উত্তোলন ও কালোব্যাজ ধারণ করে। ৯টায় জাতীয় কমিটিসহ বিভিন্ন বাম সংগঠন ও বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন শোক র‌্যালী ফুলবাড়ী শহর প্রদক্ষিণ শেষে কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দসহ কর্মী-সমর্থকরা সাড়ে ১০টায় শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। পরে ফুলবাড়ী পৌর শহরের নিমতলা মোড়ে তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুত্ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির ফুলবাড়ী শাখার ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক হামিদুল হক সরকারের সভাপতিত্বে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে প্রধান বক্তা ছিলেন জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ। সভায় আরো বক্তব্য রাখেন জাতীয় গণ ফন্টের সম্বনয়ক টিপু বিশ্বাষ, কমিউনিস্ট লীগ নেতা মোশারফ হোসেন নান্নু, গণসংহতি আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সদস্য আরিফ, তেল গ্যাস রক্ষা কমিটি ফুলবাড়ী শাখার সদস্য সচিব পৌর কাউন্সিলর জয় প্রকাশ নারায়ণ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম বাবলু, ওয়ার্কাস পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য মোসাদ্দেক হোসেন লাবু, ফুলবাড়ী শাখার তেল গ্যাস রক্ষা কমিটির সাবেক সদস্য সচিব এসএম নুরুজ্জামান, ওয়ার্কাস পার্টির ফুলবাড়ী শাখার সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শিকদার, সঞ্জিত প্রসাদ জিতু ও এমএ কাইয়ুম প্রমূখ।
এ সময় তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুত্ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির ফুলবাড়ী শাখার ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক হামিদুল হক সরকার আগামী দিনের কর্মসূচী ঘোষনা করেন। আগামী ১১ অক্টোবর ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদে সমাবেশ, অবস্থান এবং স্মারকলিপি পেশ এর পরও দাবী না মানলে ১৪ নভেম্বর দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান ধর্মঘট ও প্রধান মন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হবে। এরপরও দাবী না মানলে আগমীতে কঠোর কর্মসূচী ঘোষনা করা হবে।
অপরদিকে ফুলবাড়ী সম্বলিতি পেশাজীবি সংগঠনের ব্যানারে ফুলবাড়ী পৌর মেয়র মুর্তুজা সরকার মানিকের নের্তৃত্বে একটি শোক র‌্যালী পৌর শহর প্রদক্ষিণ শেষে শহীদ বেদীতে পষ্প স্তবক অর্পন করে শপথ বাক্য পাঠ করেন। এসময় শহীদ মিনারের আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ফুলবাড়ী ডেকোরেটর মালিক সমিতির সভাপতি ও ব্যবসায়ী সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক সম্মিলিত পেশাজীবী সংগঠনের সদস্য সচিব সহকারী অধ্যাপক শেখ সাবীর আলী। সভায় প্রধান অতিধি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ফুলবাড়ীর বিভিন্ন অরাজনৈতিক সম্মিলিত পেশাজীবী সংগঠন ও ফুলবাড়ীবাসীর আহ্বায়ক থানা ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মোঃ মুরতুজা সরকার মানিক। অন্যন্যাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পৌর কাউন্সিলর ময়েজ উদ্দিন, ফুলবাড়ী থানা ইলেকট্রিশিয়ান সমিতির সভাপতি ফারুক আহম্মেদ, ফুলবাড়ী টিউবওয়েল শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আঃ রহমান, জুয়েলার্স মালিক সমিতির সভাপতি মানিক মন্ডল, ডেকোরেটর মিস্ত্রি শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ জাকির হোসেন, ফুলবাড়ী হকার্স সমিতির সভাপতি মোস্তাক আহম্মেদ প্রমুখ পরে তারা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধান মন্ত্রী বরাবর একটি স্মারক লিপি পেশ করেন।