গেল কয়েক বছর ধরে দেশের স্বনামধন্য ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিকস ও হোম অ্যাপ্লায়েন্স প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিজয় দিবস ভলিবল টুর্নামেন্ট। এবারও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না। ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় ডিসেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে শুরু হতে যাচ্ছে ‘ওয়ালটন বিজয় দিবস ভলিবল টুর্নামেন্ট-২০১৭’। ৭দিন ব্যাপী প্রতিযোগিতায় দশটি দল অংশ নিবে।

 

প্রতিযোগিতার বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে বাংলাদেশ ভলিবল ফেডারেশনের যুগ্ম-সম্পাদক অ্যাড: ফজলে রাব্বি বাবুল বলেন, ‘সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ১২ থেকে ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে ওয়ালটন বিজয় দিবস ভলিবল টুর্নামেন্ট। আশা করছি ১০টি দলকে নিয়ে এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে পারব। দলগুলো মধ্যে থাকবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, বাংলাদেশ নৌবাহিনী, বিমানবাহিনী, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি), বাংলাদেশ বিদ্যু, তিতাস, পুলিশ এবং বাংলাদেশ রেলওয়ে। প্রথমে লিগ পদ্ধতিতে গ্রুপ ভিত্তিক খেলা হবে। এরপর সেমিফাইনাল ও ফাইনাল হবে।’

 

ওয়ালটন গ্রুপের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘এ নিয়ে সপ্তমবারের মতো ওয়ালটন গ্রুপ বিজয় দিবস ভলিবল টুর্নামেন্টে পৃষ্ঠপোষকতা করছে। ওয়ালটন গ্রুপ বরাবরই আমাদের পৃষ্ঠপোষকতা দিয়ে আসছে। বিগত দিনেও জাতীয়, আন্তঃজেলা, মহিলা লিগ থেকে শুরু করে আমাদের প্রায় সব ধরণের প্রতিযোগিতায় ওয়ালটন গ্রুপ পৃষ্ঠপোষকতা করেছে। বিজয় দিবস ও স্বাধীনতা দিবস ভলিবলে নিয়মিত পৃষ্ঠপোষকতা করছে। ওয়ালটন আমাদের ভালো পৃষ্ঠপোষক। তাদের পৃষ্ঠপোষকতায় ভলিবল অনেকদূর এগিয়েছে। এ কথায় ওয়ালটন আমাদের দুঃসময়ের ভালো বন্ধু। ওয়ালটন গ্রুপকে ফেডারেশনের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাই। পাশাপাশি তাদের জন্য শুভকামনা জানাই। ওয়ালটনের এই অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকুক। যাতে করে ভবিষ্যতে আন্তর্জাতিক ভলিবল টুর্নামেন্টেও তারা আমাদের পাশে থাকতে পারে।’

 

প্রতিযোগিতার বিষয়ে ওয়ালটন গ্রুপের অপারেটিভ ডিরেক্টর (হেড অব স্পোর্টস এন্ড ওয়েলফেয়ার) এফ.এম. ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) বলেন, ‘আমরা ওয়ালটন গ্রুপ নিয়মিত ভলিবলের সঙ্গে সম্পৃক্ত হচ্ছি। এবারও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় ডিসেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে শুরু হবে বিজয় দিবস ভলিবল টুর্নামেন্ট। আমরা ওয়ালটন পরিবার আসলে ভলিবলকে এগিয়ে নিতে চাই। ভলিবলের হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে চাই। এক সময় বাংলাদেশে জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে ফুটবলের পরেই ছিল ভলিবল। আমরা বিভিন্ন ধরণের টুর্নামেন্ট আয়োজনের মধ্য দিয়ে ভলিবলের জন্য আরো ভালো ভালো খেলোয়াড় তুলে আনতে চাই। পাইপে লাইনে ভালো কিছু খেলোয়াড় রাখতে চাই। মোদ্দাকথা আমরা ওয়ালটন পরিবার চাই, ভলিবলের সেই গৌরবের দিন ফিরে আসুক।’