বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষ্যে অদ্য ১৪ আগস্ট ২০১৭ তারিখে ঢাকার আগারগাঁওস্থ বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের প্রধান কার্যালয়ের ড. আনোয়ার হোসেন মিলনায়তনে দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান প্রধান অতিথি এবং একই মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব জনাব মোঃ আনোয়ার হোসেন বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মাননীয় মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বঙ্গবন্ধুর উপর আলোচনা করতে গিয়ে বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশেই মুক্তিযুদ্ধ হয়েছিল। তিনি ছিলেন স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্র্রষ্টা। তাঁর কারণেই আজ আমরা একটি স্বাধীন রাষ্ট্র পেয়েছি, পেয়েছি স্বাধীনতা। আজ আমরা স্বাধীন দেশের নাগরিক। পঁচাত্তরের ১৫ আগষ্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যা না করা হলে এদেশ অনেক আগেই উন্নত দেশে পরিণত হতো। তিনি বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিচারণ করে বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সব সময়ই বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উন্নয়নের কথা চিন্তা করতেন। এরই ফলশ্রুতিতে আজ আমরা রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের দ্বারপ্রান্তে। বর্তমান সরকার আজ তাঁর সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে। উক্ত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের চেয়ারম্যান
ড. প্রকৌঃ মোঃ মঞ্জুরুল হক, বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডঃ নঈম চৌধুরী এবং অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব জনাব মোঃ আনোয়ার হোসেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর জীবন ও কর্মের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে আলোচনা করেন।

এছাড়াও মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ৬টি সংস্থার প্রধানগণসহ কমিশনের বিশিষ্ট পরমাণু বিজ্ঞানী, পরমাণু চিকিৎসক ও কমিশনের কর্মকর্তা/কর্মচারীবৃন্দ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন।

আলোচনা পর্ব শুরুর পূর্বে দোয়া অনুষ্ঠানে কমিশনের সকল স্তরের কর্মকর্তা কর্মচারী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের রূহের মাগফিরাত কামনা করেন।