জাতীয়তাবাদী শক্তির অগ্রনায়ক জনাব তারেক রহমান। গণতন্ত্র বিরোধী শক্তি তাদের সাধের ক্ষমতা হারানোর ভয়ে তারেক রহমানের বক্তব্য প্রচার বন্ধ করে দিয়েছেন। গণতন্ত্রের লড়াইয়ে জনাব তারেক রহমান আজ পরিবার ছাড়া, মা ছাড়া, দেশ ছাড়া হয়ে বিদেশে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন। কোন বাধাই জনাব তারেক রহমানের কণ্ঠস্বর জনগণের কাছে পৌঁছানো আটকাতে পারবে না। বর্তমান সরকার অবৈধভাবে স্বৈরাশাসকের মতো ক্ষমতায় বসে ধরাকে সরাজ্ঞান করতেছে এবং এ নিয়ে দেশের বুদ্ধিজীবী, সুশীল সমাজ, ব্যবসায়ী, রাজনীতিবিদসহ যে কেউ কথা বললেই গুম-অপহরণের শিকার হতে হয়। সকল বাধা পেরিয়ে জাতীয়তাবাদী শক্তি গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠিত করবেই। জনাব তারেক রহমানের ৫৩ তম জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাই এবং দীর্ঘায়ু কামনা করি। জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা-জাসাস জাতীয় নির্বাহী কমিটি আয়োজিত নয়াপল্টনস্থ বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের কনফারেন্স হলে বিএনপি’র সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান জনাব তারেক রহমানের ৫৩ তম জন্মদিন উপলক্ষে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ উপরোক্ত বক্তব্য প্রদান করেন।
সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভার সভাপতিত্ব করেন জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা-জাসাস এর সভাপতি ড. মামুন আহমেদ এবং সঞ্চালনা করেন জাসাস এর সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক হেলাল খান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি’র সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক চিত্রনায়ক আশরাফ উদ্দিন আহমেদ উজ্জল। অনুষ্ঠান আরো উপস্থিত ছিলেন জাসাস এর সহ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম রিপন, সহ সভাপতি ও জাসাস ঢাকা মহানগরের আহবায়ক মীর সানাউল হক, সহ সভাপতি হাসান চৌধুরী, বাংলাদেশ কালচারাল রিপোটার্স এ্যাসোসিয়েশন এর সভাপতি মনিরুল ইসলাম মনি, জাসাস এর সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন রোকন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হান্নান মাসুম, মাকসুদুর রহমান টিপু, জাসাস ঢাকা মহানগরের যুগ্ম আহবায়ক নাহিদ উল্লাহ চৌধুরী, আশরাফুল ইসলাম দিপু, আব্দুল আলিম খোকন, আমীর হোসেন বাবু, শফিকুল হাসান রতন, আহসান হাবিবসহ জাসাস ঢাকা মহানগরের সকল থানা ও ওয়ার্ডের নেতৃবৃন্দ।
অনুষ্ঠানের প্রথমেই গাজী মাজহারুল আনোয়ারের লেখা ও সুরে “শুভ শুভ শুভ জন্মদিন……” গানটি কণ্ঠশিল্পী নাসির, দিঠি আনোয়ার, পিয়াল হাসান ও মুহিনের কন্ঠে ভিডিও ডিসপ্লেতে পরিবেশন করা হয়। এরপরে জনাব তারেক রহমানের ৫৩ তম জন্মদিন উপলক্ষে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত, সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ দোয়া এবং কেক কাটা হয়।