স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বাংলার প্রতিটি নারীই সাহসের বাতিঘর। জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে আজ শনিবার ভোরের কাগজ ও প্রীতিলতা ট্রাষ্ট আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ‘বোনেরা নিজেদের দুর্বল ভাববেন না’ বিপ্লবী অগ্নিকন্যা প্রীতিলতার লেখা শেষ চিঠির উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি আরো বলেন, প্রত্যেক নারীই তার নিজের অধিকার নিজেই প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম।
বীর কন্যা প্রীতিলতা ওয়েদ্দেদারের ১০৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ‘বিদ্রোহে বিপ্লবে এ মাটির অগ্নিকন্যা’ শীর্ষক এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
স্পিকার বলেন, পরাধীনতার নাগপাশ থেকে মুক্ত হতে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করে প্রীতিলতা যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেছেন, তা যুগ যুগ ধরে সকল নারী তথা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে অনুপ্রেরণা যোগাবে।
তিনি বলেন, শত প্রতিকূলতা ও প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে নারীরা এগিয়ে যায়। সময়ের প্রয়োজনে বাংলার নারীরা কখনই পিছপা না হয়ে অগ্রসর হয়েছে সম্মুখ পানে, ভবিষ্যতেও নারীদের এ অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে। নারী নেতৃত্ব তথা প্রীতিলতার নেতৃত্বের গুণাবলীর প্রতি আস্থা রেখেই মাস্টার দা সূর্য্য সেন প্রীতিলতাকে গুরু দায়িত্ব দিয়েছিলেন।