ঢাকা, ১৬ আগস্ট ২০১৭ খ্রি.

বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল জনাব এ কে এম শহীদুল হক বিপিএম, পিপিএম বলেছেন, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশকে আলাদা করে দেখার কিছু নেই। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নই ছিল বাঙালিকে একটি স্বাধীন ভূখন্ড দেওয়া। তিনি তাঁর সমস্ত অস্তিত্ব দিয়ে বাঙালিকে ভালবেসেছেন।
তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমাদেরকে সঠিক ইতিহাস জানতে হবে। বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে, তাঁর আদর্শ অনুসরণ করতে হবে।
আইজিপি আজ বুধবার বিকেলে রাজারবাগ পুলিশ লাইনস্ ে‘বাংলাদেশ পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর’ আয়োজিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪২তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক রচনা প্রতিযোগিতা ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।
ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন। আলোচক ছিলেন কর্ণেল জামিলের কন্যা চিত্রশিল্পী আফরোজা জামিল। অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত আইজিপি মোঃ মইনুর রহমান চৌধুরী ও বিনয় কৃষ্ণ বালাসহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
ড. আনোয়ার হোসেন বলেন, বঙ্গবন্ধু তরুণ বয়সেই নেতৃত্বের গুণাবলী অর্জন করেছিলেন। তার সাহস ছিল অসীম, দেশপ্রেম ছিল অত্যন্ত প্রবল। তিনি সারা জীবন মানুষের জন্য সংগ্রাম করেছেন। মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য লড়েছেন। তিনি বিশ্ব দরবারে নিজেকে একজন রাষ্ট্র নায়ক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়েছেন। বিশ্বের মানুষ বাংলাদেশকে না জানলেও বঙ্গবন্ধুকে জানত।
তিনি বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ ও ‘কারাগারের রোজনামচা’ বই দুটি পড়ার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান।
সভাপতি বক্তব্যে ডিএমপি কমিশনার বলেন, জাতির পিতা ইতিহাসের অমর কবি। তিনি আমাদের মহানায়ক। যত দিন যাচ্ছে মানুষের মনে বঙ্গবন্ধুর প্রতি ভালবাসা অত্যন্ত প্রবল হচ্ছে।
পরে প্রধান অতিথি বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার ও সনদ বিতরণ করেন।