ঢাকা: মঙ্গলবার, ০৭ নভেম্বর, ২০১৭
তথ্যমন্ত্রী ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর খুনী ও ক্ষমতালোভী অফিসারদের খুনোখুনির বিরুদ্ধেই ৭ নভেম্বর সিপাহী বিদ্রোহ ঘটেছিল। তিনি বলেন, সেদিন সিপাহীরা বিদ্রোহ না করলে ক্যান্টনমেন্টগুলো কসাইখানায় পরিণত হতো।
৭ নভেম্বর ২০১৭ বিকেলে নগরীর শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে সিপাহী-জনতার অভ্যূত্থান দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির ভাষণদানকালে তিনি একথা বলেন।
ইনু বলেন, ‘জিয়ার বিশ্বাসঘাতকতায় সিপাহী বিদ্রোহের মহিমা ম্লান হয় না। ৭ নভেম্বরের মহানায়ক তাহের, খলনায়ক জিয়া।  জিয়া সিপাহীদের সাথে বিদ্রোহ করে, নিজের প্রাণ রক্ষাকারী কর্নেল তাহেরকে ফাঁসি দিয়ে নিজেকে মীরজাফর হিসাবে প্রতিষ্ঠা করে।’
বর্তমান রাজনীতির প্রেক্ষাপট টেনে জাসদ সভাপতি বলেন, ‘সিপাহীদের সাথে বিশ্বাসঘাতকতার রাজনীতিই বেগম জিয়া-বিএনপি বহন করে চলেছে। বিএনপির রাজনীতির ভিত্তিই বিশ্বাসঘাতকতা। আর শোষণ-বঞ্চনা-বৈষম্যের বিরুদ্ধে সংগ্রামে তাহের ও ৭ নভেম্বর চির প্রেরণার উৎস হয়ে রয়েছে।’
জাসদের সহ-সভাপতি শহীদুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুর রহমান চুন্নু সঞ্চালনায় এ সভায় বক্তব্য রাখেন জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি, স্থায়ী কমিটির সদস্য মীর হোসাইন আখতার, এড. হাবিবুর রহমান শওকত, উপদেষ্টা বীর রফিকুল ইসলাম বীর প্রতীক, সহ-সভাপতি আফরোজা হক রীনা, শফি উদ্দিন মোল্লা, মোহর আলী চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শওকত রায়হান, নইমুল আহসান জুয়েল, জাতীয় যুব জোটের সভাপতি রোকনুজ্জামান রোকন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি সামছুল ইসলাম সুমন প্রমূখ।