মোজাম্মেল হোসেন কামাল, নোয়াখালী প্রতিনিধি ঃ
নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার ৬নং কাবিলপুর ইউনিয়নের মইজদিপুরে মোঃ আবু শাখের শাহিন নামের নবম শ্রেনীর এক স্কুল ছাত্রকে বৃহস্পতিবার রাতে কুপিয়ে হত্যা করেছে দূবৃত্তরা। নিহত শাহিন স্থানীয় ৩নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি খোরশেদ আলমের ছেলে ও স্থানীয় কাবিলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছাত্র ।
নিহত শাহিনের পিতা খোরশেদ আলম জানান, বৃহস্পতিবার রাতে স্থানীয় মসজিদে পিতা-পুত্র মিলে এশার নামাজ আদায় করে বাড়ী ফিরছিলেন। পথিমধ্যে শাহিনের মোবাইল ফোনে একটি কল আসলে শাহিন পরে বাড়ী যাবে বলে বাবার কাছ থেকে বিদায় নেয়। রাত গভীর হতে থাকলে এবং শাহিন বাড়ী না ফিরলে মোবাইল ফোন বন্ধ পেয়ে বাড়ীর লোকজন তাকে বহু জায়গায় খোঁজাখুজি করেও কোথাও তাকে পাওয়া যায়নি জানান। ভোর রাতে মুসল্লিরা ফজরের নামাজ আদায় করে বাড়ী ফেরার পথে। রাস্তার পার্শ্বের দীঘির পাড়ে পরিত্যাক্ত একটি ধান ক্ষেতে একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখে শাহিনের বাড়ীতে খবর দেয়। শাহিনের বাবা এসে লাশ দেখে শাহিনকে সনাক্ত করে। পরে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে এবং ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জননেতা আব্দুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।
সেনবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ হারুনুর রশিদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে হত্যাকান্ড কে বা কেন ঘটানো হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। এ ব্যাপারে একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও তিনি জানান।