নোয়াখালী জেলার গুরুত্বপূর্ন বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স স্বাধীনতার ৪৭ বছরেও নেই নিজস্ব ভবন, ভোগান্তি স্বাস্থ্য সেবার। ৫০ শয্যা জনবল নিয়ে ৩১ শয্যা চিকিৎসা চলছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। ভূমির কারনে সরকারী বরাদ্ধ কৃত টাকায় নির্মাণ করা যাচ্ছে না নিজস্ব ভবন। এতে উপজেলার ৭ লক্ষ মানুষের স্বাস্থ্যসেবা মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এ সুযোগে গড়ে উঠছে ব্যাক্তিগত বা প্রাইভেট হাসপাতাল। নোয়াখালী প্রতিনিধি মোজাম্মেল হোসেন কামাল’র তথ্য চিত্র নিয়ে ডেক্স রিপোর্ট ঃ

নোয়াখালী জেলার বৃহৎ উপজেলা বেগমগঞ্জ ২৬টি ইউনিয়ন ও দুইটি পৌরসভা (চৌমুহনী ও সোনাইমুড়ী) নিয়ে গঠিত হয়। তখন বেগমগঞ্জ উপজেলা থেকে ৮ কিলোমিটার উত্তরে বজরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০০৪ সনে বেগমগঞ্জের উত্তরাঞ্চলের ১০টি ইউনিয়ন ও সোনাইমুড়ী পৌরসভা নিয়ে সোনাইমুড়ী উপজেলা গঠিত হওয়ার পর বজরায় অবস্থিত স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হিসেবে স্থাপিত হয়। ওই সময় জরুরী ভিত্তিতে চৌমুহনী শহরে অবস্থিত মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র এবং স্কুল হেলথ ক্লিনিকে বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে (১৬টি ইউনিয়নের) কার্যক্রম শুরু হয়। এর পর থেকে ভবন নির্মাণ করার জন্য সরকারি অধিক গ্রহনকৃত ৬ একর ভূমির মূল্য ৬ কোটি টাকা নির্ধারণ করে জেলা প্রশাসকের দপ্তর থেকে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়। কিন্তু বছরের পর বছর ফাইল পড়ে থাকার পর পুনঃমূল্যায়নের জন্য ফেরত পাঠানো হয়। পুনরায় প্রস্তাবিত ভূমির মূল্য ২৬ কোটি টাকা নির্ধারণ করে আবার মন্ত্রনালয়ে পাঠানো হয়। কয়েক বছর পর ফাইলটি লাল ফিতা বন্ধি আবার ফেরত আসে। গত দু’বছর আগে ৬একরের পরিবর্তে মাত্র আড়াই একর ভূমির মূল্য ১৬ কোটি টাকা নির্ধারণ করে মন্ত্রণালয়ে বরাদ্দের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়। টাকা বরাদ্ধ পেলেও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নির্মানের টেন্ডার প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে না এখনও।
অস্থায়ী ভিত্তিতে বেগমগঞ্জ মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে সীমিত পরিসরে গাদা গাদি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কাজ চলছে। রোগীর থেকে ডাক্তার বেশী এমন অভিযোগ রয়েছে এখানে রোগীদের।
১, ২,৩,৪ ও ৫, চিকিৎসা নিতে আসা রোগী, স্থানীয়দের নানা অভিযোগ, আর সাথে দাবীও করছে বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নির্মানের প্রয়োজনী ব্যবস্থা গ্রহন করবেন সরকার।
বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মাহবুবুর রহমান বলেন.. জনবল সংকট নেই, মাঠ পর্যায় কর্মীসহ নানা সমস্যার মধ্য দিয়ে আমরা চেষ্টা করছি জনগনের সেবা দেওয়া জন্য।

স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মামুনুর রশিদ কিরন বলেন… অচিরে এ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ৭ লক্ষ জনগনের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে বর্তমান সরকার জননেত্রী শেখ হাছিনা সরকার ও মন্ত্রনালয় আন্তরিক নিয়ে ভূমি মন্ত্রনালয়ে জটিলতার নিরাশন করে বেগমগঞ্জবাসী স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করা হবে।