নোয়াখালী প্রতিনিধি ঃ নোয়াখালী সদর এওজবালীয়া ইউনিয়নে পুলিশের উপস্থিতিতে স্থানীয় সন্ত্রাসী কালা বাহিনীর তান্ডব ও লুটপাট।
স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, গত২৪ সেপ্টেম্বর এওজবালীয়া ইউনিয়নের ওসমানের হাতের ব্যাসলেট ছিড়া নিয়ে গ্রামের দোকানদার কালা বাহিনীর একজনের সাথে তর্ক হয়। পরে সে তার দলবল নিয়ে হামলা চালায়। প্রথমে এলাকাবাসী মিমাংসা করবে বলে জানায়। কিন্তু তারা তা না মেনে হামলা চালায় এতে গ্রামবাসী তাদেও প্রতিরোধ করলে উভয় পক্ষের ৫-৮ জন আহত হয়। তারা প্রশাসনের সহযোগিতায় সরকার দলীয় পরিচয় দিয়ে মামলা করে। এদিকে মামলার ভয় দেখিয়ে কালা বাহিনীর সদস্যরা বিভিন্ন যায়গায় চাঁদাবাজী করে। এর আগে তারা ঐ বিডিআর এর বাড়িতে চাঁদা দাবী করে। পরে থানায় তারা মামলা করে। ১৪/১১৯ সেখানে দেলোয়ার, তারেক, মজিদ, দিদারসহ ১৮ জন সহ অজ্ঞাত অনেকের। নামে মামলা করে। সেই সুবাদে তারা শনিবার সন্ধ্যায় পুলিশকে আসামী ধরার কথা বলে তাদেও সামনে বিডিআর এর বাড়ী সহ কয়েকটি বাড়ীতে ব্যাপক ভাংচুর চলায়। সেখানে মহিলাদেরকে ভয়-ভীতি দেখানো হয়।
এ ঘটনার পর ঐ এলাকায় এখন পুরুষ শূন্য হয়ে পড়েছে। এই ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর জাহের ঘটনা স্থলে গিয়ে দেখবেন বলে জানান।
সদর থানা অফিসার ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন বলেন, আসামী ধরতে গেলে এই রকম হতে পারে।