২৪ এপ্রিল (মঙ্গলবার), ২০১৮: ভেনচার ক্যাপিটাল এ্যান্ড প্রাইভেট ইকুইটি অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ভিসিপিয়াব) এর চেয়ারম্যান শামীম আহসান এবং মহাসচিব শওকত হোসেন গত সোমবার জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এর প্রধান কার্যালয়ে জনাব মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, এনডিসি, চেয়ারম্যান, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এবং ঊর্ধ্বতন সচিব, অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ(আইআরডি) এর এর সাথে এক সৌজন্য সাক্ষাত করেন। বাংলাদেশে ভেনচার ক্যাপিটাল ও প্রাইভেট ইকুইটি খাতে বিদ্যমান কিছু প্রতিবন্ধকতা দূর করার পাশাপাশি খাতটিকে আরও বেগবান ও সক্রিয় করে তোলার প্রয়াসে আসন্ন বাজেট উপলক্ষে অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে কিছু নির্দিষ্ট মতামত ও সুপারিশ এনবিআর চেয়ারম্যান এর নিকট তুলে ধরা হয়। সুপারিশ গুলোর মধ্যে কালেকটিভ ইনভেস্টমেন্ট স্কিম (বিকল্প বিনিয়োগ তহবিল) এর উপর স্ট্যাম্প ডিউটি মওকুফ, বিকল্প বিনিয়োগ তহবিল পরিচালনাকারী এবং বিনিয়োগকারীদের উপর নির্দিষ্ট সময়সীমার জন্য আয়কর মওকুফ ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত ছিল।

 

বিশ্বব্যাপী সেরা নীতি অনুশীলন এবং প্রক্রিয়াগুলো ভেনচার ক্যাপিটাল খাতের টেকসই উন্নয়নে যেভাবে ভূমিকা রেখেছে, সেগুলো নিয়ে আলোচনার এক পর্যায়ে ফেনক্স ভেনচার ক্যাপিটালের জেনারেল পার্টনার এবং ইজেনারেশন গ্রুপ এর চেয়ারম্যান শামীম আহসান, ভিসিপিয়াব  কর্তৃক পেশকৃত সুপারিশগুলো বিবেচনার জন্য এনবিআর চেয়ারম্যান এর নিকট জোর দাবী জানান। সিলিকন ভ্যালি এবং অন্যান্য প্রধান তথ্যপ্রযুক্তি কেন্দ্রগুলোর দিকে তাকালে দেখা যায়, ভেনচার ক্যাপিটাল নতুন আইটি ও আইটিইএস উদ্যোক্তাদের গড়ে তোলা এবং তাদের ব্যবসার প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে এবং এভাবে কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও সামগ্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রাখে। যথাযথ নীতিসহায়তার মাধ্যমে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ভেনচার ক্যাপিটাল বিনিয়োগ আরও বৃদ্ধি পেতে পারে। ভিসিপিয়াব থেকে এই খাতের অগ্রগতির জন্য সহায়তাপূর্ণ একটি পরিবেশ নিশ্চিতকরণের লক্ষে কাজ করে যাচ্ছে। পাশাপাশি অর্থ মন্ত্রণালয়, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর), তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রনালয়, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি), বাংলাদেশ ব্যাংক সহ অন্যান্য নীতি নির্ধারকদের কাছ যেভাবে সমর্থন পেয়ে আসছে তাতে করে বাংলাদেশের ভেনচার ক্যাপিটাল ও প্রাইভেট ইকুইটি খাতটি অনেকদুর এগিয়ে যাবে।

 

ভিসিপিয়াব এর মহাসচিব ও বিডি ভেনচার লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শওকত হোসেন আলোচনার এক পর্যায়ে তথ্যপ্রযুক্তি খাত সহ অন্যান্য খাতের উন্নয়ন ও বিকাশে ভেনচার ক্যাপিটাল ও প্রাইভেট ইক্যুইটি ফান্ড এর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার ব্যাপারে আলোকপাত করেন। তিনি উল্লেখ করেন যে নতুন নতুন সফল উদ্যোক্তা ও ব্যবসা তৈরি হবার পাশাপাশি স্থানীয় এবং  আন্তর্জাতিক ভেনচার ক্যাপিটাল কোম্পানিগুলো বাংলাদেশের এই বিনিয়োগ খাতে আকৃষ্ট হচ্ছে’’।

 

এনবিআর চেয়ারম্যান জনাব মোশাররাফ হোসেন ভূঁইয়া বাংলাদেশের খাত সহ অন্যান্য উৎপাদনমুখী ও সেবা খাতগুলোতে যাতে আরও বেশি টেকসই বিনিয়োগ হয় সেই লক্ষ্যে ভেনচার ক্যাপিটাল ও প্রাইভেট ইক্যুইটি খাতের অগ্রগতির জন্য প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন। তিনি বলেন, ভিসিপিয়াব এর প্রস্তাবিত সুপারিশগুলো এনবিআর পর্যালোচনা করে দেখবে।

ভিসিপিয়াব হল বাংলাদেশের ভেনচার ক্যাপিটাল এবং প্রাইভেট ইক্যুইটি খাতের শীর্ষ ব্যবসায়িক  সংগঠন। স্থানীয় ভেনচার ক্যাপিটাল খাত বাংলাদেশের উদীয়মান তথ্যপ্রযুক্তি, স্টার্ট আপ এবং অন্যান্য উৎপাদনশীল খাত ও কৃষি খাতে প্রায় ২৫০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে। ভিসিপিয়াব এই ভেনচার ক্যাপিটাল এবং প্রাইভেট ইক্যুইটি খাতের পক্ষ থেকে বাংলাদেশে বিনিয়োগের পক্ষে অনুকূল পরিবেশ ও নীতিমালা নিশ্চিতকরণের জন্য নীতি নির্ধারকদের সাথে কাজ করে।