পানামা পেপার্স কেলেঙ্কারিতে জর্জরিত পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রীর জন্য আরেকটি দু:সংবাদ এলো। দুর্নীতির মামলায় নওয়াজ শরিফকে ‘প্রধানমন্ত্রী পদে থাকার অযোগ্য’ ঘোষণা করে দেওয়া রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন শুক্রবার খারিজ করে দিয়েছে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট।
নওয়াজ শরিফের ছেলেমেয়ে ও সাবেক অর্থমন্ত্রী ইসহাক দারের রিভিউ আবেদনও সর্বোচ্চ আদালতে খারিজ হয়ে গেছে বলে ভারতের টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।
পত্রিকাটি লিখেছে, বিচারপতি আসিফ সাঈদ খোজার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পাঁচ বিচারকের বেঞ্চ শুক্রবার এই রায় দেয়।   খোজা ঘোষণা দেন, কারণগুলো পরে লিপিবদ্ধ হবে। সবধরনের পুনর্বিবেচনার আবেদন খারিজ করে দেয়া হল।
এই রায়ের ফলে পাকিস্তানের ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী ৬৭ বছর বয়সী নওয়াজ শরিফের এমপি পদে থাকা অবৈধই থাকল। সেসঙ্গে নওয়াজ, তার মেয়ে মরিয়ম, জামাতা সফদর এবং এই পরিবারের সাবেক হিসাব রক্ষক ইসহাক দারকে এখন দুর্নীতির অভিযোগে নিয়মিত মামলার মুখোমুখি হতে হবে।
দুর্নীতির মাধ্যমে সম্পদের পাহাড় গড়ার অভিযোগ নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের তদন্তের পর পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট গত ২৮ জুলাই সর্বসম্মত এক রায়ে নওয়াজ শরিফকে প্রধানমন্ত্রী ও পার্লামেন্ট সদস্য পদে থাকার অযোগ্য ঘোষণা করে। নওয়াজ শরিফ বরাবরই দুর্নীতির এই অভিযোগ অস্বীকার করেছিলেন। তবে আদালতের রায়ের পরপরই তিনি পদত্যাগ করেন এবং অন্তর্বর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেন তার দল পাকিস্তান মুসলিম লিগের (পিএমএল-এন) নেতা শহিদ খাকান আব্বাসি।