এন.আই.মিলন, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি- দিনাজপুরের বীরগঞ্জে বঙ্গবন্ধুর নামে কলেজের নাম পরিবর্তন করে এম এস গোপাল মডেল কলেজ নামকরণ করায় দিনাজপুর-১ (বীরগঞ্জ-কাহারোল) আসনের সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মনোরঞ্জন শীল গোপালের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করা হয়েছে।
দিনাজপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ (বীরগঞ্জ উপজেলা) এর বিচারক মো. লুৎফুর রহমানের আদালতে ২৭ সেপ্টেম্বর বুধবার বেলা ১২টায় মামলাটি করেন বীরগঞ্জ উপজেলা শাখা যুবলীগের সদস্য ও উপজেলার বাসুদেবপুর গ্রামের মৃত আব্দুল জব্বারের পুত্র মো. অজিবুল ইসলাম।
মামলার বাদী মো. অজিবুল ইসলাম আদালতে দায়ের করা মামলায় উল্লেখ করেন, বীরগঞ্জ উপজেলার পলাশবাড়ী ইউনিয়নে “বঙ্গবন্ধু মহাবিদ্যালয়” নামে একটি কলেজ রয়েছে। উক্ত কলেজ চালু হওয়ার পর হতে বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত একটি সাইনবোর্ড কলেজের সামনে স্থাপন করা হয়। কলেজটি বঙ্গবন্ধুর নামে হওয়ায় পার্শ্ববর্তি এলাকার অভিভাবকরা তাদের ছেলে-মেয়েদের এই কলেজে ভর্তি করিয়ে উচ্চ শিক্ষা অর্জন করেছেন। কিন্তু আসামী মনোরঞ্জনশীল গোপাল এমপি ইচ্ছাকৃতভাবে ক্ষমতার অপব্যবহার করে হিংসাত্মকভাবে বঙ্গবন্ধু মহাবিদ্যালয় নামীয় সাইনবোর্ডটি নামিয়ে তাঁর নামে এমএস গোপাল মডেল কলেজ নামে একটি সাইনবোর্ড টানিয়ে দেন।
মামলায় তিনি আরো উল্লেখ করেন, আসামী আওয়ামীলীগের সংসদ সদস্য হয়ে ইচ্ছাকৃতভাবে ও নিজের খেয়াল খুশিমত ক্ষমতার অপব্যবহার করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের নাম পরিবর্তন করে কলেজটি নিজ নামে অর্থাৎ এমএস গোপাল মডেল কলেজ নামকরণ করে বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত সাইনবোর্ড নামিয়ে বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা করেছেন। যাতে বঙ্গবন্ধুকে খাটো করেছেন ও অপরাধ করেছেন।
মামলায় বাদী মো. অজিবুর ইসলাম আসামী মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপির বিরুদ্ধে জাতির পিতার প্রতিকৃতি সংরক্ষন ও প্রদর্শন আইন-২০০১ এর ধারা মতে মোকাদ্দমা আমলে নিয়ে ও দঃবিঃ আইনের ৫০০/৫০১ ধারার অপরাধ আমলে নিয়ে সাক্ষী তলবে তাঁর বিরুদ্ধে সমন প্রদান ও সুবিচার করার দাবী জানিয়েছেন।
বাদীর আইনজীবী জিয়াউর রহমান আমিন জানান, বিজ্ঞ বিচারক মামলাটি আমলে নিয়েছেন। এ ব্যাপারে ২৮ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার শুনানী অন্তে বিজ্ঞ বিচারক আদেশ দেবেন বলে জানান তিনি।