টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের লক্ষ্যে আইনি, নীতি ও প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামোগত দিক থেকে বাংলাদেশ সঠিক পথেই রয়েছে বলে মনে করে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।
টিআইবি মনে করে, অন্যান্য দেশের তুলনায় তথ্যে উল্লেখযোগ্য পর্যায়ে প্রবেশাধিকার দিয়েছে বাংলাদেশ। এক্ষেত্রে তথ্য অধিকার আইন-২০০৯ প্রণয়ন, তথ্য কমিশন গঠন ও আইনের প্রয়োগকে সন্তোষজনক বলে উল্লেখ করেছে এই সংস্থাটি। পাশাপাশি, দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ও জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের কার্যক্রমকে ইতিবাচক হিসাবে উল্লেখ করেছে টিআইবি।
টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জনে সন্তোষজনক আইনি ও প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামোর পাশাপাশি সক্ষমতা ও প্রস্তুতি বিবেচনায় বাংলাদেশ সঠিক পথে রয়েছে।’
আজ রবিবার রাজধানীর ধানমন্ডির মাইডাস সেন্টারে টিআইবি কার্যালয়ের আয়োজিত ‘টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট ১৬ : দুর্নীতি প্রতিরোধ ও সুশাসন সংশ্লিষ্ট লক্ষ্যের ওপর বাংলাদেশের প্রস্তুতি, বাস্তবতা ও বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।
টিআইবি’র সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার (গবেষনা ও পলিসি) শাহজাদা এম আকরাম এই গবেষণা প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন। এসময় টিআইবি’র ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারপার্সন সুলতানা কামাল, অধ্যাপক ড. সুমাইয়া খায়ের এবং পরিচালক (গবেষণা ও পলিসি) মোহাম্মদ রফিকুল হাসান উপস্থিত ছিলেন।