জাহিদুর রহমান তারিক,ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহ জেলা, থানা ও পৌর কৃষকলীগের উদ্যেগে শোক আর শ্রদ্ধায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪২ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও ১৫ই আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস পালিত। ঝিনাইদহ জেলা কৃষকলীগ অফিসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরন করা হয়। গরীবদের মাঝে খাবার বিতরন করেন মাননীয় সংসদ সদস্য তাহজীব আলম সিদ্দিকী সমি, জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি এ্যাড.আব্দুর রশিদ, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি সাজেদুল আসলাম সোম, জেলা কৃষকলীগের সাধারন সম্পাদক আশরাফুল আলম ও জেলা কৃষকলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক এম এস উজ্জ্বল প্রমুখ।

ঝিনাইদহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কতৃক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাত বার্ষিকীতে পুস্পস্তবক অর্পন,দোয়া মাহফিল ও খাবার বিতরণ

ঝিনাইদহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কনককান্তি দাস কতৃক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও শোক দিবস উপলক্ষে, মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন, দোয়া মাহফিল ও জন সাধারনের মধ্যে খাবার বিতরণ করা হয়েছে। ঝিনাইদহের মুজিব চত্বরে শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন শেষে জেলা পরিষদ অফিসে উক্ত শাহাদাত বার্ষিকী ও শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া মাহফিলে শত শত মানুষের উপস্থিতিতে দোয়া মাহফিল ও খাবার বিতরন অনুষ্ঠিত হয়েছে। দোয়া মাহফিল ও খাবার বিতরন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কনককান্তি দাস, মাননীয় জেলা প্রশাসক জাকির হোসেন ও পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান প্রমুখ। অনুষ্ঠানের প্রথমে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, মাননীয় জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বঙ্গবন্ধুর জীবনি, শাহাদাত বার্ষিকী ও শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা এবং বক্তব্য প্রদাণ করেন। আলোচনা এবং বক্তব্য শেষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে জেলাবাসীর জন্য খাওয়া দাওয়ার পর্ব শুরু হয়। চেয়ারম্যান কনককান্তি দাস বলেন, ঝিনাইদহ জেলাবাসীর জন্য জেলা পরিষদে খাবার প্রস্তুত আছে। যতক্ষন জনগন আসবে তাদের খাবার প্রয়োজনে সারা রাত ধরে সরবরাহ করা হবে।
শোক আর শ্রদ্ধায় ঝিনাইদহে জাতীয় শোক দিবস পালিত

শ্রদ্ধা ও শোকাতুর পরিবেশে ঝিনাইদহে পালিত হয়েছে জাতীয় শোক দিবস। দিবসটি পারনে যথাযথ মর্যাদা ও কর্মসুচি গ্রহন করা হয়। দিবসটি পালন উপলক্ষ্যে সরকারী ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে শোক র‌্যালী, আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। শহর জুড়ে আয়োজন করা হয় কাঙ্গালী ভোজের। শহরের প্রতিটি পাড়া মহল্লায় হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে খাবার বিতরণ করেন আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীরা। আওয়ামীলীগ ছাড়াও অঙ্গসংগঠনের সকল ইউনিটগুলো এই বর্মসুচিতে অংশ গ্রহন করেন। শ্রমিক সংগঠনগুলো নানা প্রান্তে আলোচনা সভা ও দোয়ার মাহফিলের কর্মসুচি পালন করে। এদিকে মঙ্গলবার সকালে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে শহরের পুরাতন ডিসি কোর্ট চত্বর থেকে শোক র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক ঘুরে চুয়াডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে শেষ হয়। এখানে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিত্বে পুষ্পস্তাবক অর্পণ করে জাতির জনকের প্রতি বিন¤্র শ্রদ্ধা জানানো হয়।

এ সময় জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, জেলা পরিষদ, ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের নেতাকর্মীরা ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। পরে পৌর অডিটরিয়ামে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। জেলা প্রশাসক জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অংশ নেয় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সংসদ সদস্য আব্দুল হাই, সিভিল সার্জন ডা: রাশেদা সুলতানা, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কনক কান্তি দাস, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আছাদুজ্জামান, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক ড. খান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মকবুল হোসেন প্রমুখ। এছাড়াও দিনব্যাপী জেলার বিভিন্ন স্থানে দোয়া মাহফিল ও দুস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণ করা হয়। আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা বিভিন্ন পাড়া থেকে শোক র‌্যালীসহকারে প্রেরণা-৭১ প্রাঙ্গনে মিলিত হয় এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সংসদ সদস্য আব্দুল হাই ও সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু দিনব্যাপী বিভিন্ন স্থানের কর্মসুচিতে অংশ নিয়ে ব্যস্ত দিন পার করেন।