ঝিনাইদহ সংবাদদাতাঃ
ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ ও শৈলকুপা উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনা এবং পানিতে ডুবে তিন জনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে কালীগঞ্জ উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুই ব্যক্তির পরিচয় মেলেনি। অন্যদিকে শৈলকুপার ফাজিলপুর গ্রামে শিশির নামে দুই বছরের এক শিশুর পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়েছে। কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান খান জানান, বৃহস্পতিবার ভোরের কোন এক সময় গাড়িতে চাপা পড়ে খয়েরতলা বাকুলিয়া সড়কে অজ্ঞাত ৪৫ বছর বয়সী ব্যক্তি নিহত হন। নিহত ব্যক্তি মানসিক রোগী বলেও ওসি জানান। এদিকে একই উপজেলার কেয়াবাগান নামক স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় অজ্ঞাত (৬০) এক মহিলা নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ওই মহিলার নাম-পরিচয় জানা যায়নি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সিএনজিতে করে কালীগঞ্জ শহরের দিকে যাচ্ছিল ওই মহিলা। কেয়াবাগান নামক স্থানে পৌছালে পিছন দিক থেকে একটি বাস ধাক্কা দিলে সে সিএনজি থেকে ছিটকে মাটিতে পড়ে যায়। এ সময় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান খান পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত হওয়ার সত্যতা স্বীকার করেছেন। এদিকে শৈলকুপা উপজেলার ফাজিলপুর গ্রামে পানিতে ডুবে শিশির নামে ২ বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। শিশু শিশির ওই গ্রামের সোহাগ হোসেনের ছেলে। এলাকাবাসী জানায়, দুপুরে খেলতে খেলতে শিশুটি বাড়ীর পাশের পুকুরে পড়ে যায়। পরিবারের লোকজন তাকে খোঁজাখুজি করার পর পুকুরে ভাসমান অবস্থায় দেখতে হয়। শৈলকুপা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলমগীর হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।