zakir sikder-rajapur-jhalakati:

রাজাপুর উপজেলার বড়ইয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর মানবিক শাখার মেধাবী ছাত্রী ঝুমা আক্তার(১৮) গলায় ফাঁস দিয়ে বৃহস্পতিবার ভোর রাতে আত্মহত্যা করেছে। ঝুমা ঝালকাঠীর নলছিটির নলবুনিয়া গ্রামের আঃ লতিফ হাং এর মেয়ে।স্থানীয়রা জানায়,মৃত্যুর পূর্বে ঝুমার নিজ হাতের লেখা চিরকুট বিস্তারিত উল্লেখ করা আছে।চিরকুটে উল্লেখ আছে,পাশের গ্রাম উত্তর কাঠিপাড়ার নান্নু খলিফার ছেলে মুরাদ খলিফাকে(২০) প্রেম প্রত্যাখ্যান এবং অস্বীকার করাকে দায়ী করে ঝুমা। ঝুমার মা জানান, প্রতিদিনের মত রাতের খাবার শেষে ঝুমা ঘুমাতে যায়, ফজরের নামাজ পড়তে ডাক দিলে সে সাড়া দেয় না। তখন তার শোয়ার ঘরে উকি দিলে গলায় ওড়না দিয়ে ঘরের আড়ার সাথে ফাঁস দেয়াবস্থায় ঝুলতে দেখে চিৎকার দিলে বাড়ির লোকজন ছুটে আসে এবং ঝুমার মা ওড়না টান দিলে ঝুমার নিথর দেহ খাটে পড়ে যায়। ঝুমার বাবা প্যারাল্যাইস্টের রুগী এবং বাক প্রতিবন্ধী। ঝুমার মা আরো জানান, ঝুমা মোবাইল ফোনে রাতে কারো সাথে কথা বলেছে, তা শুনতে পেয়েছি। ঐ গ্রামের নান্নু খলিফার ছেলে মুরাদের সাথে সম্পর্ক, হয়ত তার সাথেই কথা বলেছে। আর ঝুমার নিজ হাতের লেখা চিরকুটে ঝুমার মৃত্যু কারন উল্ল্যখ রয়েছে। ময়না তদন্তের জণ্য ঝুমার লাশ ঝালকাঠি মর্গে প্রেরন করেছে পুলিশ।ঝুমার মাতা,পিতা,আত্নীয়,স্বজন, সহপাঠিরা নির্বাক। তারা এ ঘটনার দৃস্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।থানায় ইউডি মামলা রুজ্জু করেছে পুলিশ।