সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধের শহীদ বেদিতে পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন ক্যাথলিক ধর্মাবলম্বীদের ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে পোপ মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে কিছুক্ষণ নীরবতা পালন করেন।
এসময় বিউগলে বেজে উঠে করুণ সুর। পরে তিন বাহিনীর একটি সুসজ্জিত দল পোপ ফ্রান্সিসকে গার্ড অব অনার প্রদান করেন।

এরপর পোপ জাতীয় স্মৃতিসৌধের পরিদর্শন বইতে স্বাক্ষর করেন এবং স্মৃতিসৌধ প্রাঙ্গনে একটি নাগেশ্বর চাপা ফুলের চারা রোপন করেন। এসময় পোপের সাথে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, আইন মন্ত্রী আনিসুল হক ও স্থানীয় সংসদ ডা. এনামুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছেন পোপ। এসময় বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। পরে সেখান থেকে রওনা দিয়ে বিকেল ৪টায় তিনি সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে প্রবেশ করেন। প্রায় আধঘন্টা অবস্থান করে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তিনি স্মৃতিসৌধ ত্যাগ করেন। শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের পর রাজধানীর ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শনে যান এই ধর্মগুরু।

অন্যদিকে, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিসের আগমন উপলক্ষে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়। সাভারের আমিনবাজার থেকে জাতীয় স্মৃতিসৌধ পর্যন্ত ঢাকা আরিচা মহাসড়কের দুই পাশে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েনের পাশাপাশি স্মৃতিসৌধ এলাকায় ৪ স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়। পোপের আগমন উপলক্ষে বিকেল তিনটা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত প্রায় দেড় ঘন্টা যানবাহন চলাচাল বন্ধ ছিলো।