পাবনা, ০৩ নভেম্বর ২০১৭ খ্রি.।
ভাষাসৈনিক, বীরমুক্তিযোদ্ধা, পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ বলেন, দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে বিপন্ন করে স্বাধীনতার সূর্য অস্তমিত করতে চেয়েছিল। জাতীয় চার নেতার দৃঢ় নেতৃত্বের কারণেই তা করতে পারেনি শয়তানেরা।
আজ সকালে পাবনা জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে জেলা হত্যা দিবস পালন উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভূমিমন্ত্রী এ কথা বলেন। পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে মন্ত্রী ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দসহ জাতীয় পতাকা, দলীয় পাতাকা ও কালো পতাকা উত্তোলন করেন। জাতীয় চার নেতার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং তাদের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পন করেন। পাবনার আলিয়া মাদ্রাসার ইমাম মরহুমদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত ও দেশের কল্যাণ কামনা করে দোয়া পাঠ করেন। পরে মন্ত্রী সমবেতদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন।
মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে বিপন্ন করার পাশাপাশি ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করে নেতৃত্ব শূন্য জাতিতে পরিণত করতে চেয়েছিল ঘাতকরা। যে নেতৃবৃন্দ সঠিক পথে নেতৃত্ব দিয়ে অস্থায়ী সরকার গড়ে তুলেছিলেন সেই জাতীয় চার নেতাকে জেলখানায় নির্মমভাবে হত্যা করে কুচক্রি ঘাতক দল। স্বাধীনতার সূর্যকে অস্তমিত করার ষড়যন্ত্র করেছিল তারা। ঘাতকচক্রের সেই উদ্দেশ্য সফল হয়নি। যতদিন বাংলাদেশ থাকবে ততদিন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর আদর্শ চির জাগরূক থাকবে।
ভূমি মন্ত্রী আরও বলেন, শোককে শক্তিতে পরিণত করতে হবে। তিনি সাংগঠনিক কাজের গতি বাড়ানোর জন্য নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানান। মন্ত্রী বলেন, সকল অপশক্তিকে মোকাবিলা করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে গণতন্ত্র ও আইনের শাসন সমুন্নত রাখতে হবে। সরকারের রূপকল্প ২০২১ ও ২০৪১ বাস্তবায়ন করে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণে আমরা সকলেই আত্মনিয়োগে ব্রতী হবো।
এসময় অন্যান্যের মধ্যে পাবনা জেলা নেতৃবৃন্দের রেজাউল রহিম লাল, চন্দন কুমার চক্রবর্তী, শহীদুল্লাহ, হামিদ মাস্টার, মোশাররফ হোসেন, খোন্দকার জাহাঙ্গীর কবির রানা, বশির আহমেদ বকুল, শাহজাহান মামুন, আজিজুর রহমান টিংকু, ফোরকান আলী, বিজয় ভূষণ রায়, মহিলা নেতৃবৃন্দ নাদিয়া ইয়াসমীন জলি, শামসুন্নাহার রেখা, শামীমা শিরীন, শামীমা শিখা উপস্থিত ছিলেন।