ঢাকা: বুধবার, ০১ নভেম্বর, ২০১৭
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, দেশের আগামী দিনের চলচ্চিত্র জঙ্গিবাদমুক্ত মানবিক ও মননশীল সমাজ গড়তে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখবে ।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর দারুস সালাম সড়কে শেখ রাসেল মিলনায়তনে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন ইনস্টিটিউটের (বিসিটিআই) চতুর্থ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। ইনস্টিটিউটের প্রধান নির্বাহী মোঃ মনজুরুর রহমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তথ্যসচিব ও ইনস্টিটিউটের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মরতুজা আহমদ।

তথ্যমন্ত্রী এসময় চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠার জন্য এবং চলচ্চিত্র ইনস্টিটিউট গড়তে ভারতের পুনেতে বাংলাদেশের গবেষক দল পাঠাবার জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা এবং বর্তমান ইনস্টিটিউটটি প্রতিষ্ঠার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি ধন্যবাদ জানান। সেই সাথে বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণকে ইউনেস্কো ‘হেরিটেজ’র স্বীকৃতি দেয়াকে জাতির জন্য অনন্য গর্ব বলে অভিহিত করেন।

হাসানুল হক ইনু বলেন, চলচ্চিত্র আমাদের স্বপ্ন দেখায়, স্বপ্ন দেখতে শেখায়। রাজাকার-জঙ্গি-তেতুঁলহুজুরদের মোকাবিলায় চলচ্চিত্র ও সংস্কৃতি চর্চা শুধু সাহসী সঙ্গীই নয়, মানবিকতা বজায় রাখবারও হাতিয়ার।

তথ্যসচিব মরতুজা আহমদ বলেন, বিসিটিআই দেশের চলচ্চিত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপদানের পথিকৃত। চলচ্চিত্রের উন্নতিতে শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের কোনো বিকল্প নেই এবং বিসিটিআই ঠিক এ কাজটিই করছে। তিনি এসময় ইনস্টিটিউটের জন্মলগ্ন থেকে এ পর্যন্ত সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়া সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

সভায় সম্মানিত অতিথি হিসেবে অভিনেতা এ টি আম শামসুজ্জামান, চলচ্চিত্রকার শামীম আখতার, মসিহউদ্দিন শাকের ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ম. হামিদ, স্মারক বক্তা হিসেবে চলচ্চিত্র নির্মাতা ও পাঠ্যধারা উপদেষ্টা মানজারেহাসীন মুরাদ এবং প্রশিক্ষণার্থীদের প্রতিনিধি হিমু বক্তব্য রাখেন।  ।